fbpx
কলকাতাহেডলাইন

জলাশয় বোজানোর অভিযোগ প্রমাণ হলে প্রাক্তন আধিকারিককেও শাস্তি দেবে পুরসভা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কলকাতা বা সংলগ্ন এলাকায় বিগত কয়েক দিনে প্রায় অনেকেই জলাজমি নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। তাই এবার জলাশয় ভর্তি করে জমি বিক্রি করার বিষয়ে কার্যত নড়েচড়ে বসেছে কলকাতা পুরসভা। এই পরিস্থিতিতে এবার কোন প্রাক্তন আধিকারিকের বিরুদ্ধেও জলাশয় বুজিয়ে সেই জমি বিক্রি করার অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকেও শাস্তি পেতে হবে বলে সাফ জানালেন কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে শহরের কোথায় জলাশয় ছিল এবং কোথায় জলাশয় বুজিয়ে জমি তৈরি করা হয়েছে তা নিয়ে তদন্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিভাগীয় আধিকারিকদের।

দেখা গেছে, শহর কলকাতা জুড়ে এমন বহু জলাশয় ছিল যা বুজিয়ে সেই জমি বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু পরে ওই জমি যিনি কিনেছেন তিনি পুরসভার কাছে বাড়ি তৈরির অনুমতি পত্র চাইতে গেলে দেখা গেছে ওই জমি এখনও জলাশয় হিসেবেই রেজিস্ট্রার্ড রয়েছে পুরসভার রেকর্ডে। এতে জমি কিনে ফাপড়ে পড়ছেন ক্রেতারা। এর পরেই নড়েচড়ে বসেছে পুরসভা।

ফিরহাদ হাকিম এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, “আগের সরকার চোখ বন্ধ করে অনেক জলাশয় বুজিয়ে দিয়েছে। এখন গুগোল মনিটরিংয়ের যুগে সেটা আর সম্ভব নয়। এডেড এরিয়ায় এই ধরনের কাজ প্রচুর হয়েছে। তাই পুরসভার আধিকারিকদের বলেছি এই বিষয়টি নিয়ে পুরোপুরি ভালোমতো তদন্ত করতে”।

এরপরেই হুঁশিয়ারি দিয়ে মুখ্য প্রশাসক জানান, “যদি দেখা যায় ওই জায়গাতে সত্যিই জলাশয় ছিল তাহলে যে আধিকারিক এর নেতৃত্বে ওই জলাশয় বোজানো হয়েছে তার বিরুদ্ধে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অন্যথায় যদি পুরসভার রেকর্ডে ভুল থাকে তাহলে তা সংশোধন করে নেওয়া হবে।”

Related Articles

Back to top button
Close