fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

বিদ্যাসাগর সেতুর ধাঁচে পুজোর আগেই চালু হতে চলেছে নয়া মাঝেরহাট সেতু

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: উত্তরে টালা এবং দক্ষিণে মাঝেরহাট সেতুর কাজ চলায় ভোগান্তি বেড়েছিল শহরবাসীর। লকডাউনের মধ্যে তাই দ্রুত কাজ শেষ করতে চাইছে পূর্ত দফতর। ইতিমধ্যেই তিন বার সেতু চালু হওয়ার কথা থাকলেও বিভিন্ন সমস্যার কারণে তা হয়নি। তবে পুজোর আগেই কাজ শেষ হয়ে যাবে ব্রিজের কাজ। ফলে চালু হয়ে যাবে ব্রিজ বলে আশাবাদী পূর্ত দফতরের আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন:হেমতাবাদের বিধায়কের মৃত্যু নিয়ে সিবিআই তদন্তের আর্জি হাইকোর্টে

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই শেষ করা হয়েছে রেল লাইনের ওপরে থাকা গার্ডার বসানোর কাজ। ৭৬ মিটার লম্বা এই গার্ডারকে মোট ৬ টি অংশে ভাগ করা হয়েছিল। সেই অংশগুলিকে ধাপে ধাপে বসানো হয় রেল লাইনের ওপরের অংশে। লকডাউনে ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় শিয়ালদহ-বজবজ শাখার লাইনের ওপরে পাওয়ার ব্লক বন্ধ করে কাজ করতে অনেকটাই সুবিধা হয়েছে। তারপর রেল লাইনের ওপরে সুপার স্ট্রাকচারের কাজ হয়ে গেলে শুধুমাত্র কেবল টানার কাজ বাকি থাকবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নয়া মাঝেরহাট সেতু অনেকটাই দেখতে হবে দ্বিতীয় হুগলি সেতুর মতো ‘কেবল স্টেডেড সেতু।’ সেতুর পিলার বা পাইলন অনেক উচুঁ হবে। গার্ডার বা ডেক কেবল মারফত এই পিলারের সঙ্গে জুড়তে হবে।
পূর্ত দফতর সূত্রে খবর, শীঘ্রই সেই কেবল টানার কাজ শুরু হতে চলেছে।

আরও পড়ুন:অতিমারিতে ক্লান্ত ‘মহারাজা’, শুরু কর্মী ছাঁটাই প্রক্রিয়া, উঠল প্রতিবাদের স্বর

পুজোর আগে এই সেতু চালু হয়ে গেলে গঙ্গাসাগর যাত্রীদের সুবিধা হবে। মাঝেরহাট সেতু চালু হয়ে গেলে শুধুমাত্র ছোট গাড়ি, বাস, মিনিবাস নয়, সেতুর ওপর দিয়ে প্রচুর পণ্যবাহী কন্টেনার যাতায়াত করবে। সেতুর নকশা এমন ভাবে করা হয়েছে, যাতে ৩৬০ টন ওজনের গাড়ি চলাচল করতে পারে। তাই পুজোর আগে শুভ সূচনা করতে চাইছে পূর্ত দফতর।

Related Articles

Back to top button
Close