fbpx
কলকাতাশিক্ষা-কর্মজীবনহেডলাইন

নভেম্বর থেকে খুলতে পারে স্কুল, বিকাশ ভবনের নয়া পরিকল্পনা!

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা আবহে রাজ্যে স্কুল খোলা নিয়ে কিছুতেই কাটছে না জট। তবে সূত্রের খবর, নভেম্বরের গোড়াতেই স্কুল খোলার লক্ষ্য রয়েছে রাজ্য সরকারের৷ সম্প্রতি বিকাশ ভবনে বৈঠক করেন শিক্ষা দফতরের আধিকারিকরা৷ ওই বৈঠকেই নভেম্বর মাসের শুরুতে স্কুল খোলার বিষয়ে আলোচনা হয়৷ বৈঠকে স্কুলগুলিতে স্যানিটাইজেশন প্রোটোকল নিয়েও আলোচনা হয়৷ স্কুল খোলার দুই সপ্তাহ আগে থেকে স্যানিটাইজেশনের কাজ করতে হবে বলেও উল্লেখ করা হয়৷
এর আগে দুর্গা পুজোর আগে স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তবে কোভিড পরিস্থিতি বিবেচনা করার পরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও উল্লখ করেছিলেন তিনি৷ বর্তমানে রাজ্যে ২৫ হাজারেরও বেশি সক্রিয় করোনা আক্রান্ত রোগী রয়েছে৷ ফলে দুর্গা পুজোর আগে স্কুল খোলার সম্ভবনা ক্ষীণ৷ এদিকে কেন্দ্রীয় সরকার তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে ১৫ অক্টোবর থেকে স্কুল খোলার কথা জানান হয়েছে। কিন্তু এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য গুলি। তাও পরিস্কার করে দেওয়া হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। স্কুল খোলা নিয়ে এখনও পুরোটাই ধোঁয়াশা। আনলক ফোর পর্বে আংশিকভাবে স্কুল খোলার অনুমতি দিয়েছিল কেন্দ্র৷ কিন্তু বেড়ে চলা করোনা সংক্রমণের জেরে অধিকাংশ রাজ্য সরকারই এখনই স্কুল খুলতে নারাজ৷ এ রাজ্যে কবে থেকে স্কুল-কলেজ খুলবে তা নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে পড়ুয়াদের মনে৷
এক আধিকারিকের কথায়, ‘নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সরকারি ও আধা-সরকারি স্কুলগুলি খোলা সম্ভব কিনা, সে বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে৷ তবে নির্দিষ্ট কোন ও দিন ধার্য করা হয় নি। কোভিড পরিস্থিতির উপর আমাদের নজর রয়েছে৷ নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে স্কুল খোলার চিন্তা ভাবনা করলেও সবটাই নির্ভর করছে কোভিড পরিস্থিতির উপর৷’ অন্যদিকে, স্কুলে ক্লাস শুরুর জন্য মুখিয়ে আছে সিবিএসই, আইসিএসই এবং আইএসসি অনুমোদিত স্কুলগুলি। শুধু রাজ্য সরকারের সবুজ সংকেতের অপেক্ষা৷ যদিও এই মুহুর্তে অধিকাংশ আইসিএসই/ আইএসসি এবং সিবিএসই স্কুলগুলি সম্পূর্ণ ভাবে অনলাইন ক্লাস চলাচ্ছে৷ তারা অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়া ও অনলাইনেই ফল প্রকাশ করছেন৷
যদিও অনলাইন পড়াশোনা ক্লাসরুমের বিকল্প নয় বলেই স্কুলগুলির অভিমত৷ কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে এই মুহূর্তে ক্লাস শুরু করা সম্ভব হচ্ছে না৷  একাধিক স্কুলের সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, অভিভাবকদের সিংহভাগই এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছে৷ স্কুল খোলার বিষয়ে এখনও পর্যন্ত সরকারি নির্দশিকাও জারি করা হয়নি৷

Related Articles

Back to top button
Close