fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

জমি লিখে না দেওয়ায়, বৃদ্ধা মাকে মারধর ছেলে-বৌমার, হাসপাতালে ভর্তি বৃদ্ধা ও ছোট ছেলে

শ‍্যাম বিশ্বাস, উত্তর ২৪ পরগনা: জমি লিখে না দেওয়ায়, বৃদ্ধা মাকে মারধর ছেলে-বৌমার, হাসপাতালে ভর্তি বৃদ্ধা ও ছোট ছেলে। বসিরহাট মহাকুমার হাসনাবাদ থানার শিমুলিয়া গ্রামের ঘটনা। বছর ৮০ মনসুরা বিবিকে মারধর করার অভিযোগ বড় ছেলে রবিউল সরদার ও মেজো ছেলে আমিরুল সরদারের। বড় বৌমা শাহানারা বিবির বিরুদ্ধেও মারধরের অভিযোগ রয়েছে।

গত ১৩ বছর আগে বৃদ্ধার স্বামী মারা যায়। সেখান থেকে শেষ সম্বলটুকু বলতে ১০ কাটা জমি। আর সেই জমি জোরপূর্বক লিখে নেওয়ার চেষ্টা করে দুই ছেলে ও বৌমা। বৃদ্ধা রাজি না হতেই তাকে এলোপাথাড়ি চড়-ঘুষি-লাথি মারতে শুরু করে। এমনকি তার ছোট ছেলে মানসিক ভারসাম্যহীন। তাকে মারধর করে বলে অভিযোগ। বৃদ্ধা মা ও ছোট ছেলে সেলিম সরদার টাকি গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আরও পড়ুন- মানসিক অবসাদের জেরে আত্মহত্যা প্রাক্তন অধ্যাপকের

এই ঘটনার জেরে এলাকায় উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। এর আগে জোরপূর্বক এক বিঘা জমি লিখে নিয়েছিল বড় ছেলে ও  বৌমা। তারপর শেষ সম্বল টুকু বলতে ওই ১০ কাটা জমি। সেটাও জোরপূর্বক লিখে দেওয়ার জন্য কয়েকমাস ধরে চাপ সৃষ্টি করে। এরআগে বেশ কয়েকবার বচসা ও মারধর করে বিধবা বৃদ্ধা মাকে। যেভাবে মারধর করেছে  দুই ছেলে-বৌমার বিরুদ্ধে কঠিন শাস্তির দাবি জানিয়েছে স্থানীয় গ্রামবাসীরা। আর এক ছেলে আমিরুল সরদার।  সব মিলিয়ে বৃদ্ধার উপর আক্রমণে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে সেজো ছেলে আমিরুল। স্থানীয় গ্রামবাসীরা কঠিন শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। বৃদ্ধা মনসুরা বিবির অবস্থা আশঙ্কাজনক। দুই ছেলে ও বৌমার বিরুদ্ধে হাসনাবাদ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close