fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

রাশিয়ার করোনা টীকায় আস্থা রেখে স্বেচ্ছায় প্রথম গ্ৰহণ করবেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: রাশিয়ার করোনা টীকায় আস্থা রেখে স্বেচ্ছায় প্রথম করোনা টীকা গ্ৰহণ করবেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রে ম্যানুয়েল লোপেজ ওবরাডোর। নিজেই তিনি একথা জানিয়েছেন। নিয়মিত সকালে যে সাংবাদিক সম্মেনল করেন, সেখানেই এ দিন আন্দ্রে বলেছেন, ‘আমিই প্রথম এই টিকা নেব।’ এই টিকা তৈরি করতে AstraZeneca Plc ওষুধের কোম্পানির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে মেক্সিকো ও আর্জেন্টিনা।

রাশিয়ার করোনা টিকার দু মাসেরও কম সময়ের মানব ট্রায়াল নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন নানা দেশের বিশেষজ্ঞরা। এই টিকাকে এখনই কতটা মান্যতা দেওয়া যায়, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন তাঁরা। অনেকেই কটাক্ষ করে বলেছেন, সুরক্ষার থেকে প্রেস্টিজকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে ভ্লাদিমির পুতিনের দেশ। তাদের দাবি, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের মাত্র ১০ শতাংশই সফল হয়েছে এখনও পর্যন্ত। তবে রাশিয়ার টিকাকেই অনুমোদন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মেক্সিকো। তারা এই টিকার প্রথম ব্যাচ উত্‍‌পাদনও করবে বলে ঘোষণা করেছে। আর যাবতীয় ধন্দ কাটাতে তিনি নিজের শরীরে প্রথম এই টীকাকরণ করবেন বলে জানিয়েছেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট।

গত ১১ অগস্ট রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা করেন, কোভিড ১৯-এর টিকাকরণের অনুমতি দেওয়ায় হয়েছে তাঁর দেশে। শুধু তাই নয়, তাঁর এক কন্যাকে ইতোমধ্যে সেই টিকা দেওয়া হয়েছে বলেও জানান পুতিন।

উল্লেখ্য, রাশিয়াই প্রথম দেশ যারা করোনাভাইরাসের টিকা রেজিস্টার করল। তবে ফেজ থ্রি ট্রায়ালের আগেই এই টিকাকে অনুমোদন দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন তোলেন বিভিন্ন দেশের বিজ্ঞানিরা। তৃতীয় ধাপের পরীক্ষায় কয়েক হাজার মানুষের উপর টিকা প্রয়োগ করে তার গুনাগুন দেখে নিতে সময় লাগে মাসখানেক।রাশিয়ার সরকারের তরফে জানানো হয়, প্রথম ধাপে মেডিক্যাল কর্মী, শিক্ষক ও ঝুঁকির কাজে থাকা বিভিন্ন ব্যক্তিকে এই টিকা দেওয়া হবে।

Related Articles

Back to top button
Close