fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিশ্বকর্মা পুজোর আগে ফুলের দাম বৃদ্ধি, কালোবাজারির অভিযোগ খুচরো বিক্রেতাদের

দিব্যেন্দু রায়, কাটোয়া: বিশ্বকর্মা পুজোর আগে পাইকারি বাজারে ফুলের দাম অনেকটাই বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন কাটোয়া, ভাতার প্রভৃতি এলাকার ফুলের খুচরো ব্যাবসায়ীরা। তাঁরা জানিয়েছেন যে, দিন কয়েক আগে রজনীগন্ধা ফুল ৩০০ টাকা কেজি দরে তাঁরা কিনে এনেছিলেন। কিন্তু এখন দাম পড়ছে কেজি পিছু  ৪০০ থেকে ৪৫০ টাকা করে।

পাশাপাশি প্রতি ২০ পিস গাঁদা ফুলের মালার দাম যেখানে ২০০ টাকা ছিল সেখানে এখন ৩৫০ টাকা  করা নেওয়া হচ্ছে। বিশ্বকর্মা পুজো উপলক্ষে ফুলের কালোবাজারি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন ফুলের খুচরো বিক্রেতারা।

জানা গেছে, লকডাউনের কারনে কলকাতার বাজার থেকে কাটোয়া ও বর্ধমানে ফুল সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে৷ ফলে পূর্ব বর্ধমান জেলার কাটোয়া, বর্ধমান, ভাতার, গুসকরা প্রভৃতি বাজারে ফুল সরবরাহ হচ্ছে মূলত নদিয়া জেলার বেথুয়াডহরি থেকে।

[আরও পড়ুন- বিজেপি করার ‘অপরাধ’-এ দুষ্কৃতীদের হাতে জখম হলেন প্রাক্তন সেনাকর্মী]

কাটোয়ার ফুলবিক্রেতা মানিক সাহা, মাধাই দাস,ভাতার বাজারের ফুল বিক্রেতা সুশোভন শেঠরা বলেন, “এখন লকডাউনের জন্য কলকাতার বাজার থেকে ফুল কাটোয়ায় আসছে না। নদিয়ার বেথুয়াডহরি থেকে ফুল কিনে এনে আমরা বিক্রি করছি।  যদিও এখন বিয়ের অনুষ্ঠান নেই। কিন্তু শুধুমাত্র বিশ্বকর্মা পুজোর জন্য ফুলের দাম অনেকটাই বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। লকডাউনকে উপলক্ষ করে কার্যত ফুলের কালোবাজারি শুরু হয়ে গেছে৷”

বৃহস্পতিবার বিশ্বকর্মা পুজো৷ যদিও এবার করোনা আবহের কারনে পুজোয় সেভাবে ধুমধাম  হচ্ছে না।  কাটোয়া, ভাতারসহ অনান্য এলাকায় গুটিকয়েক উদ্যোক্তা  নামেমাত্র পুজো করার উদ্যোগ নিচ্ছেন বলে খবর৷ এদিকে  ফুলের দাম আকাশ ছোঁয়া হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন তাঁরা।

 

Related Articles

Back to top button
Close