fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গশিক্ষা-কর্মজীবনহেডলাইন

মঙ্গলবার থেকে ইন্টারনেট ছাড়াই শুরু হচ্ছে স্কুলশিক্ষা পর্ব

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়,কলকাতা: স্মার্টফোন বা ইন্টারনেট নয় স্কুল পড়ুয়াদের শিক্ষা দেওয়া হবে দূরাভাষের মাধ্যমে। বিজ্ঞপ্তি জারি করে আগেই জানিয়ে দিয়েছিল স্কুল শিক্ষা দফতর। এবার সেই মতই ৪ আগস্ট মঙ্গলবার থেকে রাজ্যজুড়ে চালু হচ্ছে দূরাভাষের শিক্ষাদান পর্ব। ইন্টারনেট বা স্মার্টফোনের মাধ্যমে শিক্ষার ক্ষেত্রে সব পড়ুয়াদের পক্ষে ব্যয়বহুল স্মার্টফোন কেনার ক্ষমতা নেই বা বিশেষত গ্রামাঞ্চলে হাই স্পিড ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করা সম্ভব হচ্ছিল না। সেক্ষেত্রে পরিকাঠামো গত সমস্যার জন্য অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছিল বেশির ভাগ পড়ুয়াকে। সেই সমস্যাকে দ্রুত সমাধান করতে দূরাভাষে শিক্ষাদান পর্ব চালু করার কথা জানায় রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর। এর ফলে সব পড়ুয়ারাই এবার সরাসরি শিক্ষা গ্রহণ করতে পারবে।

স্মার্টফোন না থাকলেও এখন আর চিন্তা করতে হবে না পড়ুয়াদের। সাধারণ ফোনেই যাতে অনলাইন ক্লাসে অংশ নিতে পারে পড়ুয়ারা। পড়তে গিয়ে কোথাও বাধা পেলে নির্দিষ্ট টোল ফ্রি নম্বরে ফোন করতে হবে পড়ুয়াদের। সেখানেই পড়ুয়ারা সরাসরি পেয়ে যাবে শিক্ষকদের। তাদের কাছে সমস্যার কথা সরাসরি জানান যাবে। নবম ও দশম শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের মাধ্যমে এই প্রকল্পের শুভ সূচনা হচ্ছে। সূত্রের খবর এই প্রকল্প সাফল্য লাভ করলে তা সব ক্লাসের জন্য প্রয্জ্য করা হবে। প্রতিদিন বেলা ১১ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত এবং বেলা ২ টো থেকে বিকেল ৪ টে পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে।

আরও পড়ুন:রামমন্দিরের ভূমিপুজোর আগের দিন হনুমান চাল্লিশা পাঠ করবেন কমলনাথ

লকডাউন চলাকালীন অনলাইন – শিক্ষা দান শুরু হলেও প্রত্যন্ত এলাকায় দুর্বল নেট সংযোগের জন্য এবং সব পড়ুয়ার কাছে স্মার্টফোন না – থাকায় এই শিক্ষণ সর্বজনীন হচ্ছে না বলে অভিযোগ। সেই জন্যই ‘ বাংলার শিক্ষা দূরভাষে ‘ কর্মসূচী নেওয়া হয়েছে। রাজ্য পাঠ্যক্রম কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার জানিয়েছেন, বাংলা ছাড়াও হিন্দি, নেপালি, উর্দু , সাঁওতালি এবং ইংরেজি ভাষায় পড়ুয়ারা প্রশ্ন করতে পারবে। টোল ফ্রি নম্বরে ফোন করলে জানতে চাওয়া হবে, পড়ুয়া কোন ভাষায় প্রশ্ন করতে চায়। সেই অনুযায়ী নম্বর টিপলে জানতে চাওয়া হবে, সে কোন বিষয়ে প্রশ্ন করবে। বিষয় জানালে সেই অনুযায়ী একটি নম্বরে ডায়াল করতে বলা হবে। পড়ুয়া সেই নম্বরে ডায়াল করলেই শিক্ষককে ফোনে পেয়ে যাবে। পড়ুয়া প্রশ্ন করলে শিক্ষক উত্তর দেবেন।

…………………

Related Articles

Back to top button
Close