fbpx
কলকাতাহেডলাইন

রাজ্যের খাদ্যসাথী-ই প্রকল্পই যথেষ্ট, কেন্দ্রের ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ প্রকল্পে নেই রাজ্য” : খাদ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কেন্দ্রের ঘোষিত ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ প্রকল্পের শরিক হওয়ার প্রয়োজন নেই পশ্চিমবঙ্গের। শুক্রবার একথা স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, “আমাদের সরকারের ৬-৭ মাস আগেই সিদ্ধান্ত হয়ে গিয়েছে, আমরা এই প্রকল্পটায় নেই। রাজ্যের নিজস্ব চালু হওয়া ‘খাদ্যসাথী’ প্রকল্পে ৯ কোটি মানুষ সুবিধা পান। তাই এখানে আলাদা করে কিছু করার নেই। কেন্দ্রের প্রকল্পের শরিক হওয়ার এখানে প্রয়োজন পড়বে না।’

তবে কেন্দ্রের যেটুকু করার কথা, সেটুকুও কেন্দ্র ঠিক করে করছে না বলে এ দিন তোপ দাগেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন, পশ্চিমবঙ্গে ৩ মাস মুসুর ডাল দেওয়া হবে। এখন প্রতি মাসে রাজ্যে মুসুর ডাল লাগে ১৪, ৪৩০ মেট্রিক টন। অর্থাৎ ৩ মাসে মোট ডাল লাগবে ৪৩,২৯০ মেট্রিক টন। কিন্তু ন্যাফেড এখনও পর্যন্ত পেয়েছে মাত্র ১৩,২৭০ মেট্রিক টন। যতক্ষণ না পুরো পরিমাণ ডাল পাচ্ছি, ততক্ষণ কিভাবে ডাল সরবরাহ করব? তারপর অল্প কিছু লোক পেলে বাকিরা না পাওয়ার অভিযোগ করবেন।’

আরও পড়ুন: কলকাতা পৌর নিগমের গঠিত প্রশাসক বোর্ডকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ চালুর কথা ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। তিনি জানান, চলতি বছরের আগস্ট থেকে এই প্রকল্প চালু হলে ২৩ টি রাজ্যের রেশন উপভোক্তাদের ৮৩ শতাংশ উপকৃত হবেন। সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের আগামী দু’মাস বিনামূল্যে খাদ্যশস্য সরবারহ করা হবে। রেশন কার্ড নেই এমন পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্যও মাসে মাথা পিছু ৫ কেজি গম বা চাল এবং পরিবার পিছু ১ কেজি ডাল দেওয়া হবে। তাঁরাও ২ মাস এই পরিষেবা পাবেন। কিন্তু কেন্দ্র যা বলেছে, তার ২০ শতাংশ খাদ্যশস্যও রাজ্যকে পাঠায়নি এবং রাজ্যের কাছে সমস্ত প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তির তথ্যপ্রমাণ রয়েছে বলে দাবি করেন খাদ্যমন্ত্রী।

Related Articles

Back to top button
Close