fbpx
হেডলাইন

প্রাইম মিনিস্টার রিলিফ ফান্ডে দু লক্ষ টাকা দিল শিক্ষক সংগঠন বিজিটিএ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: চলতি পরিস্থিতিতে ঘোর আর্থিক সঙ্কটে দেশবাসি। এমত অবস্থায় নিজেরা বঞ্চনার শিকার হয়েও দেশের এই আর্থিক সংকটে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এল শিক্ষক সংগঠন বিজিটিএ। বৃহস্পতিবার অরাজনৈতিক শিক্ষক সংগঠন থেকে প্রাইম মিনিস্টার রিলিফ ফান্ড দু লক্ষ টাকার একটি চেক বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষের হাতে তুলে দেওয়া হল। এর আগে মুখ্যমন্ত্রী ত্রান তহবিলে পাঁচ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছিল। বিজিটিএ-র পক্ষে থেকে ছিলেন সভাপতি ধ্রুব পদ ঘোষাল, সম্পাদক সৌরেন ভট্টাচার্য, প্রতাপ মন্ডল, ইন্দ্রবাবু প্রমুখ।এছাড়া উপস্থিত বিজেপি টিচার্স সেলের রাজ্য কনভেনার দিপল বিশ্বাস। তিনি বলেন, টিজিটি স্কেলের দাবিতে বিজিটিএ-র সমর্থনে বিজেপি প্রথম থেকে তাদের পাশে আছে। আগামী দিনেও থাকবে।

এদিন এক ভিডিও বার্তায় দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘টিজিটি , পিআরটি স্কেল সহ পার্শ্বশিক্ষক, এমএসকে/ এসএসকে, ভোকেশনাল সকল শিক্ষকের ন্যায্য দাবি, অন্য বিজেপি শাসিত রাজ্যের মত এই রাজ্যেও বিজেপি সরকারে এলে, তা পূরণ করা হবে।’ সংগঠনের পক্ষ থেকে রাজ্য সভাপতি ধ্রুবপদ ঘোষাল বলেন, ‘সংগঠনটি শিক্ষকদের, কিন্তু তাই বলে আজ এই জাতীয় বিপর্যয়ের দিনে শুধুমাত্র নিজেদের চাওয়া পাওয়া নিয়ে ব্যাস্ত থাকলে মূল্যবোধ নামক শব্দটিরই অবমাননা করা হয়।তাই,আমাদের সীমিত ক্ষমতার মধ্যে আমরা আমাদের সদস্য সদস্যাদের দেয় দান থেকে যে ফান্ড বানিয়েছি,তারই একটা অংশ আজ পি এম রিলিফ ফান্ডে জমা করলাম।’

অন্য্ দিকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এর হাতে এই ত্রান তুলে দিয়ে বিজিটিএ রাজ্য সহ সম্পাদক প্রতাপ মন্ডল বলেন,’জেলায় জেলায়ও আমরা আমাদের সাধ্যমতো ত্রান-সাহায্য নিয়ে মানুষের পাশে থাকার আপ্রাণ চেষ্টা করছি। আর এই কাজে সংগঠন এর সমস্ত শিক্ষক সদস্য ও সদস্যাদের অকুন্ঠ সমর্থন, বিশ্বাস ও সংগঠন এর প্রতি দায়বদ্ধতা ও সামাজিক কর্তব্যপরায়ণতাকে কুর্নিশ।’

সংগঠন এর তরফে উপস্থিত রাজ্য সম্পাদক সউরেন ভট্টাচার্য বলেন,’হাইকোর্ট আমাদের পক্ষে রায় দেওয়া সত্বেও, আমরা গ্র‍্যাজুয়েট টিচার্স রা নিজেদের প্রাপ্য বেতনই পাচ্ছিনা।তবুও আজ এই দুর্দিনে আমরা একটি দায়িত্বশীল শিক্ষক সংগঠন হিসেবে সরকারের বিরোধিতার নামে অসহায় গরীব মানুষের পাশে না থেকে,তাদের বুকে পক্ষান্তরে ছুরি চালাতে পারবোনা।লড়াই এ যখন নেমেছিই,টিজিটি, ক্যাস আমরা সরকারের থেকে আদায় করেই থামবো– সে সরকারে যে বা যিনিই থাকুন না কেন!’

Related Articles

Back to top button
Close