fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মহিলার শরীর জ্বরে কাঁপছিল… তারপরে রাস্তাতেই মৃত্যু! প্রশাসন নজর দিলে হয়তো বাঁচানো যেত…

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: করোনা আবহে বিমানবন্দর এলাকায় দীর্ঘক্ষণ পড়ে থাকা অজ্ঞাত পরিচয় মহিলার মৃত্যু নিয়ে চাঞ্চল্য।  ফের একবার অমানবিক আচরণ দেখা গেল শহর কলকাতার রাস্তায়।

দমদম এয়ারপোর্ট থানা থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে রাস্তার ওপরে পড়ে রইলেন এক মাঝ বয়সী মহিলা। পরে ওই অবস্থায় মৃত্যু হল তাঁর। কি কারণে ওই মহিলার মৃত্যু সেই নিয়ে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। ওই মহিলার নাম পরিচয় জানার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। করোনা আবহে রাস্তায় এইভাবে এক মহিলার মৃত্যু নিয়ে প্রশাসনের দিকে গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয়।

আরও পড়ুন:আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ, পাকিস্তানে নিষিদ্ধ পাবজি

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিকেল তিনটে থেকে ওই মহিলাকে অসুস্থ অবস্থায় দেখতে পায় এলাকার মানুষজন। তারপরে স্থানীয় মানুষ ফুটপাতের ধারে একটি ছাউনির নিচে বসিয়ে দেয় তাঁকে। ওই মহিলার শারীরিক অসুস্থ বোধ করছিলেন বলে জানা যায়। কিছু সময় বসে থাকার পর  ওই খানেই লুটিয়ে পড়েন মহিলা। কিছুক্ষণ ওইভাবে পড়ে থাকার পর মানুষজন এসে ওই মহিলাকে ডাকাডাকি করার পর সাড়া না মেলায় খবর দেওয়া হয় এয়ারপোর্ট থানায়।

কিন্তু থানা থেকে পুলিশ আসতে গড়িমসি করে বলে অভিযোগ করেন স্থানীয় মানুষজন। তার পর সন্ধ্যে সাতটা নাগাদ ওই মহিলাকে দেখতে আসেন এয়ারপোর্ট থানার পুলিশ। তবে স্থানীয় মানুষজনের অভিযোগ ওই মহিলার গায়ে জ্বর ছিল, তার সারা শরীর জ্বরে কাঁপছিল। তারপরেই সেখানেই তার মৃত্যু হয় বলে জানা যায়। স্থানীয় মানুষজনের অভিযোগ প্রশাসন যদি  ঠিক সময় আসত তাহলে হয়তো এই ভদ্রমহিলাকে বাঁচানো যেত। তার পর পুলিশ  ওই মহিলার মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য হসপিটালের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। ওই মহিলার মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধোয়াশা রয়েছে, স্থানীয় মানুষজনের অনুমান  করোনা ভাইরাসের কারণে মৃত্যু হলেও হতে পারে। তবে মৃত্যুর সঠিক কারণ ময়নাতদন্তের পরই জানা যাবে।

আরও পড়ুন:দেশে একদিনেই সংক্রামিত ২২ হাজার!

ওই মহিলার নাম পরিচয় কিছুই জানা যায়নি বলে পুলিশ সূত্র খবর। পুলিশের অনুমান ওই মহিলা কোনও সম্ভ্রান্ত পরিবারের। তার কাজ থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি হ্যান্ড ব্যাগও।

Related Articles

Back to top button
Close