fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তৃণমূল সরকারকে বাংলা থেকে অপসারিত করা না পর্যন্ত এই লড়াই চলবে: প্রতীক পাখিরা

বাবলু ব্যানার্জি, কোলাঘাট: স্বামীজীর আদর্শে  ভাবান্তিত। লক্ষ্যকে সামনে রেখে এগিয়ে গেলে একসময় তার সাফল্য আসবেই। লড়াই-সংগ্রাম করে অত্যাচারিত মানুষদের পাশে থেকে কাজ করে বর্তমান তৃণমূল সরকারের দুর্নীতি বেকারত্ব খুন রাহাজানি থেকে সাধারণ মানুষের স্বার্থ বিরোধী নানা কাজের বিরুদ্ধে লড়াই  জারি থাকবে বলে  তমলুক সাংগঠনিক যুব মোর্চার দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতির প্রতীক পাখিরা এক সাক্ষাৎকারে জানালেন।

দেউলিয়া বাজার পার্টি অফিসে যুব মোর্চার এক দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নিতে এসে যুব সমাজের ভাবাবেগকে সামনে রেখে রাজ্য নেতৃত্ব যে দায়িত্ব তুলে দিয়েছে তাকে মর্যাদা দেওয়ার জন্য সেই লড়াই আগামী ২০২১ সালের নির্বাচন পর্যন্ত চলবে বলে তিনি স্পষ্ট ভাষায় জানালেন। তমলুক সাংগঠনিক জেলার মধ্যে পাঁশকুড়া পূর্ব, পাঁশকুড়া পশ্চিম,  তমলুক,  ময়না, নন্দীগ্রাম,  হলদিয়া,  চন্ডিপুর,  মহিষাদল,  নন্দকুমার বিধানসভা। ২৪৪৪টি বুথ রয়েছে। ৪১টি মন্ডল কমিটিতে যুব সম্প্রদায়ের মানুষজন বর্তমান শাসক দলের বিরুদ্ধে তাদের ক্ষোভের কথা তুলে ধরেছেন বিভিন্ন কর্মসূচিতে।

আরও পড়ুন: করোনার দাপট অব্যাহত, শেষ ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪ হাজারের গণ্ডি পার করল

দলের আদর্শ নীতির প্রতি আকৃষ্ট হয়ে ২০১২ সাল থেকে দলের প্রতি আনুগত্য। মন্ডল সভাপতি থেকে বিভিন্ন সময়ে দলের নানা দায়িত্ব সামলানোর পর জেলার যুব মোর্চার দায়িত্বে।  যুব সম্প্রদায়ের বেকারত্ব, দৈনিক সমস্যা, সমাধানে জেলায় লড়াইয়ের মধ্যে কাজ শুরু করে দেওয়া হয়েছে। আগামী ২১ সালের নির্বাচনে যুবদের যে ভূমিকা তা বিভিন্ন কর্মসূচিতে তুলে ধরা হচ্ছে। যুবরা আকৃষ্ট হয়ে বিভিন্ন কর্মসূচিতে ভিড় বাড়াচ্ছে। আর এই ভিড়ই শাসকদলের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। শিল্প নেই, বেকারত্ব বাড়ছে,  চাকরি নেই,  দিনে দিনে অপরাধ বাড়ছে। যুবরা স্লোগান তুলেছে রাজ্যে আর এই সরকারকে রাখার কোনো প্রয়োজন নেই। এমন সরকার আসুক সেই সরকারের মধ্যে স্বচ্ছতা থাকে। বর্তমান এইসব জ্বলন্ত ইস্যু নিয়ে যুবরা এখন থেকেই  মাঠে ময়দানে শামিল হতে শুরু করে দিয়েছে আগামী বিধানসভাকে পাখির চোখ করে বলে জানান শ্রী পাখিরা।

Related Articles

Back to top button
Close