fbpx
কলকাতাহেডলাইন

এবার পুজোয় লেবু তলায় বদ্রীনাথ দর্শন

শরণানন্দ দাস,কলকাতা: রেবতী পিসির কেদার বদ্রীনাথ দর্শণের ভারি ইচ্ছে। গত বছর সব ঠিকঠাকই ছিল, কিন্তু বাতের ব্যথাটা এমন বাড়লো যে আর যাওয়া হয়ে উঠলো না। আবার এবারেতো করোনার গুঁতোয় সব চৌপাট। তবে শেষমেষ ভগবান বুঝি মুখ তুলে চাইলেন। ওই ‘হিজবিজ বিজ’ বলেছিলো না, ”গরম লাগলে তিব্বত গেলেই পারো। এইতো পেনেটি আর তারপরেই তিব্বত।’ সেই রকম আর কি? রেবতী পিসি থাকেন প্রাচী সিনেমার পাশের গলিতে। একটুখানি এঁকে বেঁকে গেলেই লেবুতলা পার্ক। আর সেখানেই এবার তৈরি হচ্ছে আস্ত বদ্রীনাথের মন্দির।

খোলসা করে বলা যাক, করোনার আবহেও শহর কলকাতার অন্যতম নামি পুজো ‘সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের’ পুজো এবারও চমক দিচ্ছে। গতবছর সোনার দুর্গা দর্শকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু ছিল। এবারও প্রতিমার রূপদান করছেন কুমোরটুলির প্রখ্যাত ভাষ্কর মিন্টু পাল। আর মণ্ডপ তৈরি হচ্ছে ‘ চারধামের’ অন‌্যতম বদ্রীনাথের মন্দিরের অনুকরণে। শনিবার কুমোরটুলিতে নিজের স্টুডিওয় বসে প্রখ্যাত ভাষ্কর মিন্টু পাল বললেন, ‘ আমার প্রতিমায় দেবীর সেই চিরায়ত রূপ ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করছি। যে মূর্তি দেখলে মানুষের মনে ভক্তিভাবে জাগবে। এখানে দেবীমূর্তি এক চালায় নয়, আলাদা আলাদা যেমন হয় তেমনি হবে।’

আরও পড়ুন: রবীন্দ্রনাথ ‘বহিরাগত’, মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য

বদ্রীনারায়ণ মন্দিরটি হিন্দুদের পবিত্র ‘চারধামের’ অন্যতম। উত্তরাখণ্ডের চামোলি জেলায় গাড়োয়াল পার্বত্য অঞ্চলে অলকানন্দার তীরে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩, ১৩৩ মিটার (১০, ২৭৯ফুট) উচ্চতায় এই মন্দিরটি অবস্থিত। এই মন্দিরটি বিষ্ণু মন্দির। ‘ দিব্য দেশম’ নামে পরিচিত ১০৮ টি বৈষ্ণব তীর্থের একটি এই মন্দির। এবার সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের দুর্গাপুজোর মণ্ডপ তৈরি হচ্ছে বদ্রীনাথের মন্দিরের অনুকরণে। মণ্ডপ নির্মাণের দায়িত্বে বিপ্লব রক্ষিত।  কাউন্টডাউন শুরু। পুজোর গন্ধ এসেছে। করোনা ভীতি কাটিয়ে বাঙালি জেগে উঠবে ‘বলো দুর্গা মাইকি’ বলে।

Related Articles

Back to top button
Close