fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

এবার ই-রিকশা-টোটো চালানোর দাবি নিয়ে জেলা শাসকের কাছে জমা পড়ল ডেপুটেশন

মালদা: লকডাউনের চলছে। তার মধ্যে চালু হচ্ছে বাস-ট্রেন পরিষেবা। কিন্তু ই-রিক্সা চালু করতে দেওয়া হচ্ছে না। তার জন্য হাজার হাজার বেকার যুবকরা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। জেলায় নতুন করে ব্যাটারি চালিত ই-রিকশা টোটো চালানোর দাবি জানিয়ে জেলা শাসকের কাছে ডেপুটেশন দেওয়া হলো। মঙ্গলবার দুপুরে মালদা জেলা ব্যাটারিচালিত ই-রিকশা টোটো চালক ইউনিয়নের পক্ষ থেকে চার দফা দাবি নিয়ে একটি স্মারক পত্র জেলাশাসক রাজর্ষি মিত্রের কাছে জমা দেওয়া হয়।

 

 

ওই সংগঠনের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে যে, দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে লকডাউনের জেরে হাজার-হাজার টোটো চালকেরা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। তাদের সংসার অর্ধাহারে চলছে। বহু ই- রিক্সা চালকেরা গাড়ি লোন নিয়ে কিনেছেন। কিন্তু ব্যাংকের ঋণ শোধ করতে পারেননি । এই পরিস্থিতিতে দুই জন যাত্রী নিয়ে ই-রিক্সা চালানোর অনুমতি দেওয়া হোক। নইলে বহু বেকার যুবকের চরম দুর্ভোগে পড়তে হব।

 

 

এই সংকট পরিস্থিতির মধ্যে কর্মহীন ব্যাটারি চালিত ই-রিক্সার টোটো চালকদের পাশে দাঁড়িয়ে সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি স্মারক পত্র জেলা প্রশাসনের কাছে এদিন জমা দেওয়া হয়। মালদা জেলা ব্যাটারিচালিত ই-রিকশা টোটো ইউনিয়নের এক কর্মকর্তা মুকুল কর্মকার বলেন, লকডাউন চার দফায় চলছে। তার মধ্যে এখন ট্রেন, বাস চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার । এই পরিস্থিতিতে টোটো চালকদের জন্য ভাবনা চিন্তা করুক প্রশাসন এবং সরকার । আমরা চাই প্রতিটি ব্যাটারিচালিত ই-রিকশা গুলিতে দুইজন করে যাত্রী নিয়ে চলাচল করুক চালকেরা । তাহলে কিছু রোজগার হয়তো তারা করতে পারবেন। এছাড়াও আরো বেশ কিছু দাবি-দাওয়া আমাদের রয়েছে , যেগুলি জেলা প্রশাসনের কাছে এদিন জমা দেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close