fbpx
কলকাতাহেডলাইন

এবার পুজোয় নতুন চমক, রোবট মানবী মারিয়া

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: করোনাসুরের ভ্রুকুটি সত্ত্বেও ক্রমশ পুজোর উত্তেজনার পারদ চড়তে শুরু করেছে। আর গত এক দশকের বেশি সময় ধরে বাঙালির সেরা উৎসবের থিমের বৈচিত্র্য নজর কেড়েছে আম জনতার। করোনার আতঙ্কের মধ্যেও শহরের শারদোৎসবে কিন্তু চমকের অভাব নেই। কোথাও বদ্রীনাথের মন্দির, কোথাও মায়ের মুখে রূপোর মাস্ক আবার কোথাও বা করোনা মারতে কামান দাগা হবে। তবে এতসবের মধ্যেও নিশ্চিত ভাবেই চমক হতে যাচ্ছে রোবট মারিয়া। একটু ভুল বলা হলো মারিয়ার যমজ বোন।

শনিবার ঠাকুর পুকুরের এস.বি. পার্ক সার্বজনীন পুজোর মাঠে হাজির ছিল সেই যন্ত্র মানবী। থিম মণ্ডপের উন্মোচন করলো সে। পুজো কমিটির সম্পাদক সঞ্জয় মজুমদার জানালেন, ‘ করোনা আবহে আমরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলছি। মানুষের মধ্যে এই বার্তা আরও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দিতেই এবার আমাদের মণ্ডপে হাজির থাকছে রোবট মারিয়ার যমজ বোন। আর আজ আমাদের থিম মণ্ডপের উদ্বোধনও করলো সে।’ মারিয়ার যমজ বোনের গপ্পোটা শোনালেন ড. অঙ্কুশ ঘোষ যিনি মারিয়াকে তৈরি করেন। ২০১৯ এ জন্মের পরপরই সে রওনা দেয় চেন্নাই। সেখানে একটি আমেরিকান সংস্থায় রিসেপশনিস্ট কাম সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি করছে। এরপরই নতুন মারিয়া তৈরি করেন তিনি।

আরও পড়ুন: বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি নিযুক্ত হলেন মুকুল রায়

পুজোর ক’দিন কী করবে সে? লাল পাড় সাদা শাড়ি পরে সে আগত দর্শনার্থীদের স্বাগত জানাবে। তারপর দর্শনার্থীদের হাতে তুলে দেবে স্যানিটাইজারের পাউচ প্যাক। মারিয়ার মধ্য দিয়ে আরও একটা বার্তা তুলে ধরা হবে। তা হলো কলকাতা তথা বাংলা যে বিঞ্জানে এখনও দেশকে পথ দেখাচ্ছে তার বড়ো উদাহরণ মারিয়া। এই অগ্রগতিকে তুলে ধরতেই‌ মারিয়াকে পুজোর মুখ করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close