fbpx
কলকাতাহেডলাইন

এবার প্লাজমা দান করলেন গবেষক ছাত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এবার করোনা মুক্ত হয়ে প্লাজমা দান করলেন উত্তর কলকাতার আহিরীটোলা বাসিন্দা দেবশ্রী বসাক। ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ কেমিক্যাল বায়োলজির গবেষক ছাত্রী দেবশ্রী। শুক্রবারই মেডিকেল কলেজে প্লাজমা দিয়েছেন করোনা জয়ী এই গবেষক ছাত্রী।
গত ২২ জুলাই করোনাভাইরাসের পজিটিভ রিপোর্ট আসে দেবশ্রীর। এরপর বাড়িতেই আইসোলেশনে ছিলেন তিনি গত ১৩ অগাস্ট তাঁর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।এরপরেই কাজে যোগ দেন দেবশ্রী। তখনই প্লাজমা দান করার বিষয়টি তাঁর মাথায় আসে। যেমন ভাবা তেমন কাজ। সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন প্লাজমা দান করবেন তিনি। তবে পরিবারের সদস্যরা প্রথমেই রাজি হননি। তাঁরা সামান্য ভয় পেয়েছিলেন। তবে তাঁদের বুঝিয়ে শেষপর্যন্ত আজ প্লাজমা দান করেন তিনি।
এই প্রসঙ্গে গবেষক ছাত্রী বলেন, “আমি অধ্যাপক ডক্টর শিল্পক চট্টোপাধ্যায়ের অধীনে গবেষণা করছি। উনি আমায় উৎসাহ দেন প্লাজমা দেওয়ার জন্য। প্রথমে ভয় পেয়েছিলাম যদি কোনভাবে ইনফেকশন হয়। কিন্তু তারপর দেখলাম প্লাজমা দেওয়ার মাধ্যমে অনেকেই সুস্থ হয়ে যাচ্ছেন। তাই আমার মনে হল এই প্লাজমা দেওয়ার মাধ্যমে যদি অন্য কেউ সুস্থ হয়ে ওঠেন তাহলে সেটা অনেকটাই ভালো লাগার জায়গা তৈরি করবে।”
গত কয়েক মাস ধরে প্লাজমা থেরাপি ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলছে।গত কয়েক মাস ধরে প্লাজমা দান করে যাচ্ছেন পুলিশ,স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে চিকিৎসকরা। সম্প্রতি গবেষণায় ধরা পড়েছে কলকাতা প্লাজমা থেরাপিতে অনেককেই পিছনে ফেলে দিয়েছে। যদিও এই চাল পুরো শেষ হতে আরও এক মাস সময় লাগবে বলেই দাবি করছেন গবেষকরা।

Related Articles

Back to top button
Close