fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

চিকিৎসক বদলি নিয়ে এবার শাসক ও বিরোধী তরজা আলিপুরদুয়ারে

সুমিত কার্যী, আলিপুরদুয়ার: আলিপুরদুয়ারে চিকিৎসক বদলি নিয়ে এবার শাসক ও বিরোধী তরজা শুরু হল জেলায়। সোমবার আলিপুরদুয়ার জেলা থেকে চার চিকিৎসক বদলিকে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র বলে দাবি বিজেপির ।

এদিন পাল্টা বদলি নিয়ে সরকারি সিদ্ধান্তের পক্ষে জোর সওয়াল করেছেন আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের রোগী কল্যান সমিতির চেয়ারম্যান তথা আলিপুরদুয়ার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র সৌরভ চক্রবর্তী। এদিন বিজেপির পক্ষ থেকে চিকিৎসক
বদলি নিয়ে সাংবাদিক সন্মেলন করেন জেলা বিজেপির সভাপতি গংগা প্রসাদ শর্মা।

সাংবাদিক সন্মেলনে তিনি বলেন, “জেলা থেকে চার চিকিতসককে বদলি করা হয়েছে। রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করে তাদের বদলি করা হয়েছে। কোভিডের এই পরিস্থিতিতে এর আগেও জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ও উপমুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিককে বদলি করে এই জেলার চিকিতসা পরিষেবা বিঘ্নিত করা হয়েছে। এর পর ফের রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রে জেলা থেকে চার বিশেষজ্ঞ চিকিতসককে বদলি করা হয়েছে। আলিপুরদুয়ারের মাননীয় বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তীর অংগুলি হেলনে এই সব হচ্ছে। উনি অযথা স্বাস্থ্য ব্যাবস্থায় নাক গলাচ্ছেন। জেলাবাসি তার এই ভুমিকাকে ভালো চোখে দেখছেন না।”

উল্লেখ্য আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের চিকিতসক শল্য বিশেষজ্ঞ প্রলয় পণ্ডিত, স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ উদয়ন মিত্র, শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ অরুন কুমার আদক ও ফালাকাটা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিতসক মাধব হালদারকে বদলির নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য ভবন। এই চার চিকিতসককে বদলির নির্দেশ আসার পরেই জেলাজুড়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। এর আগেও জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ও উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিককে বদলি নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল জেলা।

এবার চার চিকিতসককে বদলি নিয়ে ফের শোরগোল শুরু হল। এবার এই ঘটনা নিয়ে রাজনৈতিক তরজা শুরু হল। বিষয়টি নিয়ে আলিপুরদুয়ারের বিধায়ক তথা আলিপুরদুয়ার জেলা সদর হাসপাতালের রোগী কল্যান সমিতির চেয়ারম্যান সৌরভ চক্রবর্তী বলেন, ” পারফরমেন্সের ভিত্তিতে চিকিতসকদের বদলি করা হয়েছে। জেলার সব চিকিতসকদের পারফর্মেন্স রেকর্ড করা হয়। সেই রেকর্ডের ভিত্তিতে বদলি করা হয়েছে। আর তাছাড়া বিষয়টি রাজ্য সরকারের বিষয়। কাকে কখন কোথায় বদলি করবে তা রাজ্য সরকারের বিষয়। যখন এই চিকিতসকদের এখানে নিয়ে আসা হয়েছিল তখনতো বিজেপি সরকারকে ফুল দিয়ে প্রশংসা করে নি। তাহলে এখন কেন বিরোধীতা। আসলে বিজেপি এটা নিয়ে রাজনীতি করতে চাইছে।”

Related Articles

Back to top button
Close