fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তিনদফার ঝড় বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত বালুরঘাটের কুয়ারন, ভাঙল মাটির দেওয়াল, উড়ল ঘরের চাল

জেলা প্রতিনিধি, বালুরঘাট: দফায় দফায় ঝড় বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত বালুরঘাট। ভাঙল দেওয়াল, উড়লো ঘরের চাল। মঙ্গলবার রাত থেকে হওয়া কয়েক দফার ঝড় বৃষ্টিতে ক্ষতির সম্মুখীন বালুরঘাটের বাসিন্দারা। শহর লাগোয়া তিন নম্বর চকভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েতের দক্ষিণ কুয়ারন এলাকায় প্রায় ৫০ টি বাড়ি ভেঙে তছনছ হয়ে পড়েছে।

তুমুল ঝড় বৃষ্টিতে ঘরের চাল উড়ে যাওয়ায় রাতের অন্ধকারে চরম আতঙ্কের মধ্যে পড়েন এলাকার বাসিন্দারা। মাটির দেওয়াল ভেঙে পড়ায় দরকারি সামগ্রীও নষ্ট হয়েছে অনেকের। বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন পঞ্চায়েত প্রধান পিটার বারুও। বুধবার সকালে ঘটনার খবর পেয়েই এলাকা ঘুরে ক্ষতিগ্রস্তদের ছবি তুলে বিডিওর কাছে সাহায্যের আর্জি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা জুড়ে একাধিক ছোট বড় ঝড়ের ঘটনায় ক্ষতির মুখে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। চাষের জমির ফসল নষ্ট থেকে শুরু করে বাড়িঘর ভেঙে সব কিছুতেই মাথায় হাত পড়ে বাসিন্দাদের। একেই করোনা নিয়ে দুশ্চিন্তার শেষ নেই তার ওপর মাঝেমধ্যেই এমন ঝড় বৃষ্টিতে কার্যত বিপাকে পড়েছেন গ্রামের দুঃস্থ মানুষেরা। মঙ্গলবার রাত থেকে শুরু হয় প্রচন্ড ঝড় বৃষ্টিতে বিভিন্ন স্থানে ভেঙে পড়ে গাছ। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে অন্ধকারাচ্ছন্ন হয় একাধিক এলাকা। যার মধ্যে দক্ষিণ কুয়ারন এলাকায় ভেঙে পড়ে মাটির বাড়িগুলি, উড়ে যায় ঘরের চালও। আর যার জেরে রাতভর এক চরম অসহায় অবস্থার মধ্য দিয়েই কাটিয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা।

চকভৃগু পঞ্চায়েত প্রধান পিটার বারু জানিয়েছেন, এক ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তরা সাহায্য না পেতেই ফের তুমুল ঝড় বৃষ্টিতে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন দক্ষিন কুয়ারনের বাসিন্দারা। শুধুমাত্র ওই এলাকাতেই প্রায় ৫০টি বাড়ির চাল উড়ে ভেঙে পড়েছে। এই অসহায় পরিস্থিতির মধ্যে বাসিন্দাদের সাহায্যার্থে বিডিওর কাছে আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দা রুদ তিরকি, এলিজাবেথ সরেন ও দাউদ এক্কারা জানিয়েছেন, রাতের ঝড়-বৃষ্টিতে তাদের টিনের ও মাটির বাড়ি ভেঙে পড়ে। পরিবারের সবকিছু তছনছ হয়ে গিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে কী করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না। তারা প্রত্যেকেই চান প্রশাসন তাদের সাহায্যে এগিয়ে আসুক।

Related Articles

Back to top button
Close