fbpx
দেশহেডলাইন

বাড়তে চলেছে টিকিটের দাম, ইউজার চার্জ নেবে রেল

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ট্রেনে যাত্রা করার জন্য এবার থেকে দিতে হবে বেশি ভাড়া । এবার সরকার জানাল, যে বেসরকারি সংস্থা ট্রেন চালাবে, তারা ইচ্ছামতো বিভিন্ন রুটে ভাড়া নিতে পারবে। রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান ভি কে যাদব বলেন, ‘বেসরকারি সংস্থাগুলিকে ইচ্ছামতো ট্রেনের ভাড়া স্থির করার অধিকার দেওয়া হবে। তবে একই রুটে চলবে এয়ার কন্ডিশনড বাস ও প্লেন। ভাড়া স্থির করার সময় বেসরকারি সংস্থাকে একথা মাথায় রাখতে হবে।’

রেলওয়ে বোর্ড চেয়ারম্যান ও সিইও বিনোদ কুমার যাদব জানিয়েছেন, বিমানবন্দরে যেমন ইউজার চার্জ নেওয়া হয়, এবার থেকে বেশ কিছু রেল স্টেশনেও ইউজার চার্জ নেওয়া হবে । নীতি আয়োগের সিইও অমিতাভ কান্ত জানিয়েছেন, প্রাইভেট ট্রেনের ভাড়া মার্কেটের হিসেবে ঠিক করা হবে। যাত্রীদের ভ্যালু অ্যাডেড পরিষেবা প্রদান করা হবে।মোট রেল স্টেশনের প্রায় ১০ থেকে ১৫ শতাংশ স্টেশনে ইউজার চার্জ নেওয়া হবে । CRB ও CEO জানিয়েছে, ১০৫০ স্টেশনে যাত্রীদের ফুটফল বৃদ্ধি করা হবে । ফুটফল বাড়তেই Railway Station Redevelopment করা হবে । গোটা দেশে রেলের প্রায় ৭০০০ স্টেশন রয়েছে । ইউজার চার্জ নিয়ে শীঘ্রই রেলের তরফে নোটিফিকেশন জারি করা হবে। তবে কত হবে এই চার্জ সেই বিষয়ে এখনও কিছু জানানো হয়নি ।রেল বোর্ডের তরফে জানানো হয়েছে ২৪ মার্চ পর্যন্ত হাই ডেনসিটি রুটে ডাবলিং, ট্রিপলিং ও ইলেক্ট্রিফিকেশনের কাজ পুরো হয়ে যাবে।

এদিন রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান বি কে যাদব জানিয়েছেন, অত্যধিক ব্যস্ত স্টেশনগুলিতে যাত্রী সুবিধার জন্য অত্যাধুনিক ব্যবস্থা দেওয়া হবে। নতুন করে ঝাঁ চকচকে হওয়া এবং ব্যাস্ত স্টেশনগুলিতে ট্রেনের ভাড়ার অংশ হিসাবে শীঘ্রই ইউজার ফি নেওয়া শুরু করবে রেল। এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হলে এই প্রথমবারের মতো রেল যাত্রীদের থেকে এই ধরনের চার্জ নেবে। রেলের তরফে দাবি করা হচ্ছে, আগামী পাঁচ বছরে রেলে যাত্রী সংখ্যা অনেকটাই বাড়বে। ফলে স্টেশনে যাত্রী সুবিধা আরও উন্নত করার দিকে নজর দেওয়া হচ্ছে। ফলে এই নামমাত্র ইউজার চার্জ নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: জন্মদিনে দেশবাসীর কাছে ৫টি উপহার চাইলেন নরেন্দ্র মোদি

IRCTC এর শেয়ারগুলি বিক্রি করা হবে ওএফএসের (OFS) মাধ্যমে বিক্রি করা হবে। ইতিমধ্যেই ডিসিভেস্টমেন্ট বিভাগ মার্চেন্ট ব্যাংকারদের শেয়ার কেনার জন্য বিডের আহ্বান করেছে। আগামী ৩ সেপ্টেম্বর প্রাক বিড সভা অনুষ্ঠিত হবে। প্রসঙ্গত, IRCTC ভারতীয় রেলের একটি সহযোগী সংস্থা। এই কর্পোরেশনের সাহায্যে ভারতীয় রেলের টিকিট বুকিং করা হয়ে থাকে। এছাড়াও এই সংস্থা বেশ কিছু বেসরকারি ট্রেনও চালায়। আইআরসিটিসি ২০১৯ সালের অক্টোবরে শেয়ার বাজারে প্রবেশ করেছে। বুধবার এই সংস্থার শেয়ারের দাম ১৩৬৩ টাকায় বন্ধ হয়ে গেছে। আইআরসিটিসি এশিয়া-প্যাসিফিকের ব্যস্ততম ওয়েবসাইটের অন্তর্ভুক্ত। এর মাধ্যমে প্রতি মাসে ২.৫ – ২.৮ কোটি টিকিট বিক্রি হয়। প্রতিদিন এর ওয়েবসাইটে ৭ কোটি লগইন হয়।

Related Articles

Back to top button
Close