fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

নাবালককে হাত-পা বেঁধে চাবুক পেটা তৃণমূল নেতার

নিজস্ব সংবাদদাতা, রায়গঞ্জ: নাবালককে হাত-পা বেঁধে চাবুক পেটা করল তৃণমূল নেতা। ঘটনায় করনদিঘি থানার পুলিশ অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ফজলুর রহমান সহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করল। করনদিঘি থানার পুলিশ অফিসার বিমল শাটিয়ার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা রুজু  করে। পুলিশ এই মামলায় দুইজনকে গ্রেফতার করে।

সোমবার ধৃতদের ইসলামপুর আদালতে হাজির করলে বিচারক তাদের জামিন মঞ্জুর করে। যদিও ঘটনার পর থেকেই পলাতক মূল অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ফজলুর রহমান।

[আরও পড়ুন- আরামবাগে বিজেপি কর্মী খুনের প্রতিবাদ, পথ অবরোধ বিজেপির]

উল্লেখ্য, করনদিঘি থানার দৌলতপুর গ্রামে হাইস্কুলের সপ্তম শ্রেনীর ছাত্র সমীর আলিকে চোর সন্দেহে দোকানের বারান্দায় হাত-পা বেঁধে ওই এলাকার ফজলুর রহমান নামে এক তৃনমূল কংগ্রেস নেতা চাবুক দিয়ে বেধরক মারধোর করে।

এই ভিডিও ভাইরাল হতেই প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। চাপে পড়েই মামলা রুজু করে পুলিশ। জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা অরিন্দম সরকার বলেন, “এই ঘটনা অত্যন্ত নির্মম ঘটনা। অভিযুক্তের শাস্তি হওয়া উচিত। আইন আইনের পথেই চলবে।’’

 

Related Articles

Back to top button
Close