fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদায় পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে ৪০ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ঘিরে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব

মিল্টন পাল, মালদা: শাসকের পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে শাসক দলের নেতা কর্মীদের কাজ না করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ। আর এই অভিযোগ ঘিরে প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল। দলীয় প্রধানের বিরুদ্ধে জেলা শাসককে অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েতের মেম্বার কর্মীদের। পঞ্চায়েত সদস্যদের উপস্থিতিতে কোনো রেজ‍্যুলেশন পাশ না করে অবৈধ ভাবে টেন্ডার পাশ করে ৪০ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠল গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের গঙ্গাপ্রসাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘটনা। আর এই সরোব হয়েছে বিজেপি।

গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল সদস্য মতিউর রহমানের অভিযোগ গঙ্গাপ্রসাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আমিনুল ইসলাম পঞ্চায়েত আইন অনুযায়ী পঞ্চায়েত সদস্যদের উপস্থিতিতে কোনো রেজ‍্যূলেশন পাশ না করে অবৈধ ভাবে চল্লিশ লক্ষ টাকার টেন্ডার করেছে। কাজ না করে সমস্ত টাকা আত্মসাৎ করেছে। তারা জেলা শাসকের কাছে দলীয় প্রধানের বিরুদ্ধে লিখিত ভাবে অভিযোগ দায়ের করেছেন। আর প্রধান মোটা অঙ্কের টাকা দিয়েছে ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের নির্মাণ সহায়ক থেকে অন্যান্য সরকারি কর্মীরা। প্রধানের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ তুলে ঘটনা তদন্তের দাবি করেছেন গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল সদস্য মোহাম্মদ নাসিম হক। খোদ দলীয় প্রধানের বিরুদ্ধে দলেরই পঞ্চায়েত সদস্যরা এই অভিযোগ করায় চরম অস্বস্তিতে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

তৃণমূলের মালদা জেলার কো-অর্ডিনেটর দুলাল সরকার বলেন, এরকম একক ভাবে করা হবেও না করতে পারবেও না।সেক্ষেত্রে যদি করার চেষ্টা করে তাহলে আইনে আটকে যাবে। সেই জন্য আটকে যাবে। বাতিল হয়ে যাবে। দল রয়েছে ওখানে বিধায়ক রয়েছে তারা বিষয়টি দেখবে। সেখানে আলোচনা করে সমস্যার সমাধান করা হবে। এই ভাবে অবৈধ ভাবে টেন্ডার করা যায় না এই টেন্ডার বাতিল হয়ে যাবে। যা করার প্রশাসন করবে। দলীয় ভাবে গোটা বিষয়টি দেখা হবে।

বিজেপির মালদা জেলা সহ-সভাপতি অজয় গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, আগে তৃণমূলের নেতারা কাটমানি নিয়ে খান্ত ছিল। এখন নিজের দলের লোকরায় অভিযোগ করছে কোন রেজ‍্যুলেশন হচ্ছে না। এতেই বোঝা যাচ্ছে সরকারি নিয়ম রীতির কোন ব্যাপার নেই। যার ফলে লক্ষ লক্ষ নয় কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করছে তৃণমূলের প্রধানরা। আমরা বিজেপি কোন অভিযোগ করতাম তাহলে তৃণমূল বলতো এরা সব কিছুতে অভিযোগ করে। মালদা জেলা জুড়ে অবস্থান করছে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে তৃণমূলেরই গোষ্ঠী। তাই তৃণমূল কোন রকম সরকারী নিয়মনীতি না মেনে রেজুলেশন না করে টাকা আত্মস্বাৎ করছে তৃণমূল। তারা জেনে গেছে ২০২১সালে তারা আসবে না। সেই জন্য তারা যতটা যা পারে সমস্ত জায়গা থেকে দিদির অনুপ্রেরনায় কামিয়ে চলেছে।

Related Articles

Back to top button
Close