fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষ প্রকাশ্যে

মিল্টন পাল, মালদা: রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ প্রকাশ্যে এল। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকায়। ভাঙচুর করা হয়েছে বেশ কয়েকটি গাড়ি। একদিকে আমিনুল ইসলাম গোষ্ঠী অপরদিকে হরিশচন্দ্রপুর ২ নম্বর ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি জুবেদা বেগমের স্বামী আশরাফুল ইসলাম গোষ্ঠীর সংঘর্ষ হয়। দুই পক্ষই একে অপরের উপর চড়াও হয়েছে। এতে সামান্য কয়েকজন আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থলে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসে। গোটা ঘটনা নিয়ে চরম অস্বস্তিতে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

 

স্থানীয় তৃণমূল নেতা আমিরুল ইসলাম বলেন, অনেক চেষ্টা করে বিভিন্ন দ্বারে দ্বারে ঘুরে এই রাস্তার জন্য অর্থ বরাদ্দ করতে হয়েছে আমাদের। উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতর মারফত অর্থ বরাদ্দ করা হয়। কিন্তু হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি জুবেদা বেগমের স্বামী আশরাফুল ইসলাম এই কাজে বাধা দেয়। তার দাবি ছিল এর কাজটির ঠিকাদারি তাকে দিতে হবে। আরে নিয়ে প্রতিবাদ করায় আমার উপর হামলা চালানো হয়। যদিও জুবেদা বেগম বলেন যে, আমি কাজ দেখতে গিয়েছিলাম সেই সময় আমিরুল ইসলাম ও তার দলবল নিয়ে আমার ওপর হামলা করে আমার গাড়িটি ভাঙচুর করে।

গোটা ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছে বিজেপি।  বিজেপির রাজ্য নেতা মানবেন্দ্র চক্রবর্তী বলেন, কোথাও সিন্ডিকেট কোথাও কাটমানিড় জন্য প্রতিদিন তৃণমূল কর্মীরা নিজেদের মধ্যে গোষ্ঠী কোন্দলের মধ্যে জড়িয়ে পড়ছে যার জেরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। এর ফলে সাধারণ মানুষের জীবন-জীবিকা ব্যাহত হচ্ছে।

 

তৃণমূলের মালদা জেলার কার্যকরী সভাপতি দুলাল সরকার বলেন, বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা স্বীকার করে নেন। তিনি বলেন যে, যারা এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে তাদেরকে দল সতর্ক করেছে। আগামী দিন এই ধরনের ঘটনা ঘটলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Related Articles

Back to top button
Close