fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তৃণমূলের গোষ্ঠী  কোন্দলে জেরবার কোচবিহার, আটক সভাপতি সহ ১৬

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  ফের প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ। রবিবার রাত থেকেই দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়ায় কোচবিহার নাটাবাড়ি বিধানসভা এলাকার দেওচড়াই চুলকানি বাজার এলাকায়। সোমবার সকালে এলাকায় উপস্থিত হন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী তথা এলাকার বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তিনি এলাকার ছাড়তেই পুনরায় চরম আকার ধারণ করে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল। ঘটনায় রবীন্দ্রনাথ ঘোষ ঘোষিত অঞ্চল সভাপতি মুজিবর রহমানকে আটক করেছে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ, সেই সাথে আরও ১৫ জনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় টহল দিচ্ছে বিরাট পুলিশ বাহিনী।

ঘটানার সূত্রপাত রবিবার। রাত সারে আটটা নাগাদ দেওচড়াই গ্রাম পঞ্চায়েতের বাজার এলাকায় দুটি বাইক বাইক ভাঙচুর করা হয় । খবর পেয়ে তুফানগঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী পৌছায় এলাকায় । এদিন সকালে এলাকায় পৌছান মন্ত্রী। তার পরেই দুই গোষ্ঠী সংঘর্ষে জরিয়ে পরে।মন্ত্রী ঘোষিত অঞ্চল সভাপতি মজিবর রহমান বলেন,আজ সকালে তারা চুলকানির বাজারে ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে একটি দলীয় পর্যায়ের আলোচনা করার জন্য জমায়েত হয়েছিলেন, এমন সময় প্রাক্তন অঞ্চল সভাপতি ফারুক মন্ডল তার লোকজন এবং দুষ্কৃতী বাহিনী তাদের উপরে আক্রমণ করেন। ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

স্থানীয় এবং পুলিশ সূত্রে জানা গেছে এদিন দেওচড়াই গ্রাম পঞ্চায়েতের চুলকানির বাজারে ফারুক মন্ডল এবং মজিবর রহমানের দুই গোষ্ঠীর জমায়েত হয়। এই জমায়েত কিছুক্ষণের মধ্যেই হিংসায় পরিনত হয় ৷ দুই পক্ষই বাশ, লাঠি নিয়ে একে অপরের ওপর ঝাপিয়ে পরে। এই সময় চুলকানির বাজার তৃণমূল কংগ্রেসের সামনে থাকা ১০টি বাইকে ভাঙচুর করা হয়।

Related Articles

Back to top button
Close