fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

গাজোলে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে তৃণমূলের সভা, বিপাকে নিত্যযাত্রীরা, এটাই তৃণমূলের সংস্কৃতি, কটাক্ষ বিজেপির

মিল্টন পাল, মালদা: পিকের ফরমানে জেলায় জেলায় চলছে বিভিন্ন দল থেকে বিভিন্ন দল থেকে তৃণমূলে যোগদান কর্মসূচি ও প্রতিবাদ সভা। আর সেখানে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে তৃণমূলের সভা করার অভিযোগ। বিপাকে নিত্যযাত্রী থেকে সাধারণ যাত্রীরা। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার মালদা গাজোল থানা এলাকার আলমপুর এলাকায়। ঘটনায় কটাক্ষ করেছে  বিজেপি।

জানা গিয়েছে, জেলা জুড়ে প্রতিদিন চলছে যোগদান ও প্রতিবাদ সভা। এদিনও ছিল গাজোল এলাকায় যোগদান কর্মসূচি। সেখানে বিভিন্ন দল থেকে শতাধীক কর্মী তৃণমূলে যোগ দেয়। সেই কর্মসূচিতে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে স্বয়ং বিধায়ক দিপালী বিশ্বাসের নেতৃত্বে এই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। যার জেরে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের একটি লেন পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়।

এক যাত্রী শ্যামল দাস জানান, এদিন ডাক্তার দেখানোর জন্য মালদায় যাচ্ছিলেন। কিন্তুু এদিন জাতীয় সড়ক যানজটের জেরে ডাক্তার দেখানো হল না। সভার জেরে মানুষকে কেন এই দূর্ভোগে পরতে হবে। দলের সভা হতেই পারে তা কি জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ করে। মানুষের অসুবিধা করা কি উচিত।

গাজোলের বিধায়ক দিপালী বিশ্বাস জানান, আমরা জাতীয় সড়কের ওপর কোন সভা করিনি। লোক বেশি হয়ে যাওয়ার কারণে রাস্তার ওপর লোক দাঁড়িয়ে গিয়েছিল।বিরোধীরা আমাদের উন্নয়ন ও মানুষের যোগদান মেনে নিতে পারছে না। আর সেই কারনে এধরনের মিথ্যা অভিযোগ করছে। মানুষ আমাদের সঙ্গে আছে।

জেলা বিজেপির সহ সভাপতি অজয় গাঙ্গুলী বলেন, এটাই তৃণমূলের সংস্কৃতি। জাতীয় সড়ক অবরোধ করে মঞ্চ বেঁধে সভা করা তাদের কাজ। এরা মানুষের জন্য কাজ করে না। আমরা মিছিল মিটিং সভা করলে তার অনুমতি দেওয়া হয় না মঞ্চ ভেঙে দেওয়া হয়,গ্রেফতার করা হয়। সাধারণ মানুষ যাতে অসুবিধায় পড়ে এটাই তারা চাই। আর পুলিশ তো শাসকের পুতুল। তারা যা বলবে তাই হবে। এই অত্যাচার মানুষ আর সহ্য করবে না। মানুষই এর যোগ্য জবাব দেবে।

Related Articles

Back to top button
Close