fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শিক্ষিকা ধর্ষণ কান্ডে অভিযুক্ত নেতা নূর আলম হোসেনকে বহিষ্কার করল তৃণমূল

সোমা কর দিনহাটা:  শিক্ষিকা ধর্ষণ কান্ডে অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস নেতাকে শোকজের সাত দিন পরেও জবাব না দেওয়ায় নূর আলম হোসেনকে বহিষ্কার করল দল। সোমবার সাংবাদিক সম্মেলন করে তাঁকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য দলের সমস্ত পদ ও সাধারণ সদস্য পদ থেকেও বহিষ্কারের কথা ঘোষণা করেন তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার জেলা সভাপতি তথা অনগ্রসর শ্রেনী কল্যাণ মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মণ।

কোচবিহারে দলের জেলা কার্যকারী সভাপতি পার্থ প্রতিম রায়কে পাশে বসিয়ে জেলা সভাপতি বলেন, গত ৯ মে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের পরিপেক্ষিতে শোকজ করা হয়েছিল। কিন্তু সেই শোকজের কোন উত্তর পাওয়া যায় নি। আর সেই কারনেই দলের রাজ্য নেতৃত্বের সাথে কথা বলে যতদিন পর্যন্ত আদালত থেকে ওই মামলায় নিষ্কৃতি না পায় ততদিন পর্যন্ত সমস্ত রকম পদ এমনকি সাধারন সদস্যপদ থেকেও বরকাস্ত করা হল।”

গত ৫ মে দিনহাটার এক শিক্ষিকা তৃণমূল কংগ্রেসের সিতাই বিধানসভা কমিটির কনভেনার তথা কোচবিহার জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ নূর আলম হোসেনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন। মামলা দায়ের হওয়ার পর নূর আলম হোসেন পুরো অভিযোগকে অস্বীকার করেন। শুধু তাই নয়, ধর্ষিতা ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে হামলা করার পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেন নূর আলম হোসেনের স্ত্রী। এরপর ধর্ষিতার বাড়িতেও হামলার ঘটনা ঘটেছে অভিযোগ। ইতিমধ্যেই দলীয় ভাবে ওই অভিযুক্ত নেতাকে সিতাই বিধানসভার বিধায়ক জগদীশ বর্মার হাত দিয়ে শোকজের চিঠি পাঠিয়ে দেন। কিন্তু সেই চিঠিরও কোন উত্তর এদিন পর্যন্ত তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা নেতাদের হাতে এসে পৌছায় নি। শেষ পর্যন্ত অভিযুক্ত নেতাকে এদিন দল থেকে বহিষ্কারের কথা ঘোষণা করেন জেলা নেতৃত্বরা। এদিকে নূর আলম হোসেনকে এখনও গ্রেপ্তার না করায় বিরোধী দল গুলির পাশাপাশি তৃণমূলের অন্ধরেও অনেকে দিনহাটা থানার পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন।

বিজেপি নেতা দীপ্তিমান সেনগুপ্ত , সুদেব কর্মকার, অমিত সরকার প্রমুখ বলেন, “ দল থেকে বহিষ্কার করে তৃণমূল যে নাটক করছে তা মানুষ বুঝতে পারে। যদি সত্যি সত্যি তৃণমূল নূর আলম হোসেনের মত একজন ধর্ষণে অভিযুক্ত নেতাকে সমর্থন না করত তবে দলীয় হুইপ জারি করে জেলা পরিষদ থেকে পদত্যাগ করাতো।

অভিযোগের গুরুত্ব বিচার করে দল যথাযথ ব্যবস্থা নিয়েছে। এতে দলের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে বলে জানিয়েছেন  দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ।

Related Articles

Back to top button
Close