fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তৃণমূল কর্মীর বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণে উড়ে গেল শৌচাগারের ছাদ

মিল্টন পাল: তৃণমূল কর্মীর গোডাউন ঘরের পাশের শৌচালয়ে বোমা বিস্ফোরণ। যদিও ঘটনায় কোন হতাহতের খবর নেই। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রতুয়া থানার ভাদো এলাকায়। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে ওই শৌচাগার। উড়ে যায় শৌচাগারের ছাদ। কি করে এলাকায় বোমা এলো তার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে যে, ভাদো এলাকায় রাজ্য সড়কের পাশে রয়েছে একটি গোডাউন। স্থানীয় ব্যবসায়ী শেখ ইসমাইলের এই গোডাউনটি বর্তমানে বন্ধ রয়েছে। এই গোডাউন পাশেই রয়েছে তাদের শৌচাগার। সোমবার সকালে হঠাৎ বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে যায় রতুয়া থানার পুলিশ। শৌচাগারে বোমা বিস্ফোরণ হতেই ভেঙে পড়ে শৌচাগারটি। এলাকায় বোমা এলো কি করে তা নিয়ে  আতঙ্কে রয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। যদিও এই ঘটনার পেছনে মাদক নেশায় আসক্ত যুবকদের যুক্ত থাকার অনুমান করছেন এলাকাবাসী। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, রাত হতেই বেশ কিছু নেশায় মত্ত যুবকরা আসা যাওয়া করে। সেই সমস্ত নেশায় আসক্ত যুবকরা হয়তো এই বোমা মজুত করেছিল। সেই বোমায় বিস্ফোরণ হয়ে যায়।

আরও পড়ুন- বকেয়া পাঁচ মাসের কমিশন অবিলম্বে প্রদানের দাবি সহ একাধিক দাবিতে খাদ্য দফতরে বিক্ষোভ

স্থানীয় সিপিআইএম লোকাল কমিটি সদস্য জয়নাল আবেদীন অভিযোগ করে বলেন যে, সেখানে শেখ ইসমাইল নামের তৃণমূলের সক্রিয় কর্মীর গোডাউন ঘর হয়েছে। সেখানে শৌচাগারে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। সেখানেই শেখ ইসমাইল এবং তার লোকজনেরা হয়তো বোমা মজুত করে রেখেছিল। তৃণমূল গত পঞ্চায়েত ভোটের সময় গুলি চালিয়ে, বোমা বাজি করে বুথ দখল করে রতুয়া এলাকার পঞ্চায়েত নিজেদের দখলে নিয়েছে। আগামী একুশে বিধানসভা নির্বাচন, সেই নির্বাচনে সন্ত্রাস চালাতে এই বোমা গুলো মজুত করা হয়েছিল। জেলা বিজেপির সহ সভাপতি অজয় গাঙ্গুলী বলেন, সন্ত্রাস করা তৃণমূলের কাজ। পঞ্চায়েত ভোটে যা করেছিল বিধানসভা ভোটেও তাই করতে চাইছে। মানুষ সব বুঝতে পারছে। এর জবাব মানুষ তৃণমূলকে দেবে।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close