fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ঐতিহ্যের দুর্গাপুজোয় বিভাজনের রাজনীতির ছোঁয়া নয়, নাড্ডাকে তোপ ডেরেক ওব্রায়ানের

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: ঐতিহ্যের দুর্গাপুজোয় বিভাজনের রাজনীতির ছোঁয়া নয়। তোপ দাগলেন তৃণমূল রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। সোমবার সোশ্যাল মিডিয়ায় টুইট করে বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডার সিএএ নিয়ে বক্তব্যের পালটা প্রতিক্রিয়া জানান। ডেরেক বলেন, ‘দুর্গা পুজো আনন্দ ভাগ করে নেওয়ার সময়। আর সেই সময় বিজেপি রাজ্য সভাপতি ‘বিভাজন ও শাসন’-এর কথা বলছেন। স্বাভাবিকভাবেই এটা বিদ্রুপ মনে হতে পারে।’ এদিন শিলিগুড়িতে এসে ফের একবার সিএএ’র পক্ষে সওয়াল করেন বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা। নাড্ডার সেই মন্তব্যের পরই এদিন সন্ধ্যায় পালটা প্রতিক্রিয়া জানান ডেরেক ওব্রায়ান।

রাজ্যে প্রথম থেকেই সিএএ’র বিরোধিতা করছে তৃণমূল। ‘ক্যা ক্যা ছি ছি’ শ্লোগান তুলে কাঁসর ঘন্টা বাজিয়ে পথে নেমেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে হুশিয়ারি দিয়ে স্পষ্ট জনিয়ে দেন এ বাংলায় কোনও মতেই সিএএ হতে দেবেন না। এদিন উত্তরবঙ্গ সফরে এসে নাড্ডার সিএএ নিয়ে মন্তব্য যেন আগুনে ঘি ঢালার কাজ করল। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, এ রাজ্যে সিএএ হলে তৃণমূলের ভোট ব্যাঙ্ক কমবে। তাই আগে থেকেই হুশিয়ারি দিয়ে রাখছে। তাই এদিন নাড্ডাকে পালটা বিধলেন ডেরেক।

এ প্রসঙ্গে ডেরেক আরও বলেন, ‘আপনার দল প্রতিদিন অতীতের উপনিবেশিক ইতিহাস থেকে বিভাজন ও শাসনের রাজনীতির কথা আমদানি করছে। গত ছয় বছরে আপনার দল যা যা করতে পারে সবটাই করেছে। কিন্তু ঐতিহ্যের এই দুর্গাপুজোর সময় রাজনীতি করার আদর্শ সময় নয়। বা ঝগড়া করার সময় ও নয়। আমাদের মহান রাজ্য বাংলা সেরা ঐতিহ্যের দুর্গাপূজার সময়। এটা আনন্দ ভাগ করে নেওয়ার সময়। এই সংস্কৃতি, এই শালীনতা বাংলায় বসবাসকারী প্রতিটি মানুষের মধ্যে বর্তমান। তাই আমি আপনাকে ও আপনার পরিবারকে দুর্গাপূজোর শুভেচ্ছা জানালাম।’

 

 

Related Articles

Back to top button
Close