fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মর্মান্তিক…মোমবাতি থেকে বাড়িতে আগুন, পুড়ে মৃত্যু ২ বছরের শিশুর, অগ্নিদগ্ধ আরও তিন

শুভেন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়, আসানসোল: মোমবাতির আগুন বাড়িতে লেগে পুড়ে মৃত্যু হল এক শিশুর। সেই আগুনে অগ্নিদগ্ধ হয়েছে শিশুর মা সহ আর তিনজন। বৃহস্পতিবার বিশ্বকর্মা পুজোর রাতে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে আসানসোলের রানিগঞ্জ থানার আমড়াসোঁতা ( পাঞ্জাবিমোড়) ফাঁড়ির বাঁশরার ভুঁইয়া পাড়ায়৷ মৃত শিশুর নাম আয়ুষ ভুঁইয়া (২)। অগ্নিদগ্ধ তিনজনের নাম হল শিশুর মা প্রীতি ভুঁইয়া (২৩) অরবিন্দ ভুঁইয়া (৩) ও দূর্গা ভুঁইয়া (১৩)।

তার মধ্যে প্রীতি ভুঁইয়া আসানসোল জেলা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। বাকি দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হয়।
শুক্রবার সকালে আসানসোল জেলা হাসপাতালে ময়নাতদন্তের পরে শিশুর দেহ তার বাবা ছটু ভুঁইয়ার হাতে তুলে দেওয়া হয়। এই ঘটনায় গোটা এলাকায় শোকস্তব্ধ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলের পর থেকে রানিগঞ্জ সহ আসানসোল শিল্পাঞ্চল জুড়ে বৃষ্টি শুরু হয়। গভীর রাতে বৃষ্টির পরিমাণ বেড়ে যায়। সেই কারণে রানিগঞ্জের আমড়াসোঁতা পঞ্চায়েত এলাকার বাঁশরা ভুঁইয়া পাড়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। লোডশেডিংয়ের জন্য ঘরের অন্ধকার দূর করতে ভুঁইয়া পাড়ার বাসিন্দা পেশায় দিনমজুর ছটু ভুঁইয়ার স্ত্রী প্রীতি ভুঁইয়া মোমবাতি জ্বালান। অসাবধানতাবশত ওই মোমবাতির থেকে গোটা ঘরে আগুন লেগে যায়। ছোট টালির ছাদে বৃষ্টি আটকাতে প্লাস্টিক ও ত্রিপল দেওয়া ছিল।

মুহূর্তের মধ্যে সেই আগুন গোটা ঘরে ছড়িয়ে পড়ে৷ ফলে সেই সময় বাড়িতে থাকা প্রীতি ভুঁইয়া, তার দুই ছেলে অরবিন্দ ভুঁইয়া, আয়ূষ ভুঁইয়া ও প্রীতির বোন দুর্গা ভুঁইয়ার গায়ে আগুন লেগে যায়। আগুনে চারজনই অগ্নিদগ্ধ হয়ে যায়। যদিও সেই সময় রাতে ছটু ভুঁইয়া বাড়িতে ছিলেন না ৷ বেশ কিছুক্ষণ পরে সেই ঘটনার কথা জানতে পারেন প্রতিবেশীরা। তারা সবাইকে উদ্ধার করে আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক আয়ুষকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে খবর পেয়ে ছটু ভুঁইয়া জেলা হাসপাতালে আসেন।

আরও পড়ুন:পেটিএমের সূত্র ধরে হাবড়ার দম্পতি খুনে অভিযুক্ত তন্ময় বরকে গ্রেফতার করল পুলিশ

শুক্রবার সকালে আমরাসোঁতা ফাঁড়ির পুলিশ এলাকায় যায়। প্রাথমিক তদন্তের পরে পুলিশের অনুমান, অসাবধনতার জন্যই মোমবাতি থেকে বাড়িতে আগুন লেগে যায়।

Related Articles

Back to top button
Close