fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কালীপুজোর ঠাকুর দেখতে বেরিয়ে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, মৃত তিন বন্ধু, আহত ১

নিজস্ব প্রতিনিধি, এগরা (পূর্ব মেদিনীপুর): মর্মন্তিক পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল তিন বন্ধুর। এরা সকলেই পরিযায়ী শ্রমিক। চারজন বন্ধু মিলে কালীপুজো ঠাকুর দেখতে বেরিয়েছিলেন। এক দুর্ঘটনা কেড়ে নিল তিনজনের প্রাণ। আহত আরও এক বন্ধু। বাকি একজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানাগেছে। ঘটনাটি ঘটছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার এগরা – বেতা রাস্তার ছোট নলগেড়িয়া সংলগ্ন এলাকায়।
পুলিশ জানিয়েছে মৃতরা এগরায় বারানিধি গ্রামের সুব্রত জানা (২১) ও শুভদ্বীপ বর্মণ (৩২), ছোট নলগেড়িয়া গ্রামের রাজেন্দ্র বর (৪০)৷ আহত প্রসেনজিৎ বর্মণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূএে জানা গেছে, চারজন ভিন রাজ্যের পরিয়ারী শ্রমিকের কাজ করতেন। করোনা আবহে লকডাউনে কারণে বাড়ি ফিরে আসে চারজন।
শুভদ্বীপ বর্মণের নিজের বাড়িতে একটি চারচাকা গাড়ি ছিল। শনিবার রাতে ঠাকুর দেখার জন্য চারজন মিলে একটি মারুতি গাড়ি করে কালীঠাকুর দেখার জন্য বেরিয়ে পড়েন। ঠাকুর দেখে বাড়ি ফেরার পথে এগরা বেতা রাস্তার ছোট নলগেড়িয়া কাছে মারুতি গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে পড়ে যায়। প্রসেনজিৎ বর্মণ গাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়লেও বাকি তিনজন গাড়ির মধ্যে আটক পড়েন। তারপরে চিৎকার শুরু করেন। প্রতিবেশীরা ছুটে এলেও কোন ভাবেই তিনজনকে উদ্ধার করতে পারেননি। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসে এগরা থানার বিশাল বাহিনী।
ক্রেনের সাহায্যের গাড়িটি উদ্ধার হয়। পাশাপাশি তিনজনকে উদ্ধার করে করে এগরা হাসপাতালে পাঠায়। তিনজনকে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ ঘাতক মারুতি গাড়িটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। শোকস্তব্ধ দুটি গ্রাম।

আরও পড়ুন: বিহারে AIMIM-এর সাফল্য ভারতের রাজনীতিতে এক নতুন দিন দেখাবে: আকবরউদ্দিন ওয়েইসি

এগরায় থানার ওসি কাশীনাথ চৌধুরি জানান, তিনটি মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কাঁথি হাসপাতালে ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে। ঠিক কি কারণে এমন দুর্ঘটনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close