fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

অগ্নিকাণ্ডে ভষ্মীভূত ট্রলার, আহত একাধিক মৎস্যজীবী

মিলন পণ্ডা, জুনপুট (পূর্ব মেদিনীপুর): পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি দেশপ্রান ব্লকের পেটুয়াঘাট মৎস্য বন্দরে বড়সড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল। এই দুর্ঘটনায় কোনও প্রাণহানি খবর পাওয়া যায়নি। জানা গিয়েছে, শনিবার রাত আটটা নাগাদ দুর্ঘটনাটি ঘটে। এই দুর্ঘটনায় দুটি ট্রলার পুরো ভষ্মীভূত হয়ে যায়। তার পরেই একে একে অন্যান্য ট্রলারে আগুন ছড়িয়ে পড়তে থাকে। দুর্ঘটনার ফলে বেশ কয়েকজন মৎস্যজীবী আহত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের জেরে গোটা এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

উল্লেখ্য, পেটুয়াঘাট মৎস্য বন্দর এশিয়ার বৃহত্তর মৎস্য বন্দর গুলির মধ্যে অন্যতম। এখান থেকে কয়েক হাজার ট্রলার প্রতি বছর এই মৎস্য বন্দর থেকে মৎস্য শিকারের জন্য সমুদ্রের পাড়ি দেয়। এই বছরও এখান থেকে বহু ট্রলার সমুদ্রে মৎস্য শিকারে পাড়ি দিয়েছিলেন। তবে করোনা ভাইরাসের জেরে এবার ১৫ জুলাই সমুদ্রে পাড়ি দিয়েছে। দেরিতে নামলেও ফের নিন্মচাপের কারণে  ট্রলার গুলিকে মৎস্য বন্দরে ফিরে আসতে বাধ্য হয়।

              আরও পড়ুন: এক সপ্তাহে তিনবার, ফের জঙ্গি হামলায় গুলিবিদ্ধ বিজেপি নেতা

শনিবার রাত আটটা নাগাদ পেটুয়া মৎস্যবন্দরের থাকা মা ভবতারিনী নামের এক ট্রলারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এদিন মৎস্যজীবিরা ট্রলারে রান্না করছিল। রবিবার ভোররাতে আবার সমুদ্রের মৎস্য শিকারের যাবেন বলে প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। আচমায় গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে আগুন লেগে যায়। স্থানীয় মৎস্যজীবিরা জল ঢেলে জল আগুন নোভানোর চেষ্টা করলেও কিন্তু  নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব হয়নি। দ্রুত আরও আগুন ছড়িয়ে পড়তে থাকে।

                 আরও পড়ুন: কোভিড সেন্টারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, মৃত ৭, আহত ৩০

পেটুয়াঘাটে মা ভবতারিনী নামের ট্রলারে আগুন লাগার পরই পাশের দাঁড়িয়ে থাকা ট্রলারের আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, পর পর তিনটি ট্রলারে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। দুর্ঘটনায় দুটি ট্রলার সম্পূর্ণ ভষ্মীভূত হয়ে যায়। কাঁথিতে দমকল না থাকার কারণে এগরা থেকে হাজির হয় দমকলের একটি ইঞ্জিন। ঘন্টাখানেকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা যায়। আগুনে পুড়ে যাওয়া ট্রলার ক্ষয়ক্ষতি পরিমাণ কয়েক লক্ষ টাকা বলে জানা গিয়েছে।

 

প্রত্যক্ষদর্শী শ্যামল কুমার জানা বলেন, ‘আমরা জানতে পারি কাঁথিতে দমকলের ইঞ্জিন নেই ৷ এগরা থেকে আসবে। তাই আমরা আগুন নেভানোর কাজ কাজে হাত লাগাই৷ দমকল আসার আগে মোটামুটি ভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছিলাম।‘ দমকল দেরিতে আসায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন মৎস্যজীবিরা। নিয়ন্ত্রনে আসার পরই দমকল ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে।

 

জুনপুট কোস্টাল থানার এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে অনুমান করা হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে ট্রলারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অন্য কোনও বিষয় জড়িত রয়েছে কিনা সেটাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close