fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মহান সাঁওতাল হুল দিবস পালিত হল মিনাখায়

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্কঃ আজ ঐতিহাসিক ৩০ শে জুন…মহান সাঁওতাল হুল দিবস। আর এই দিনটি স্বারম্বরে পালিত হল উত্তর ২৪ পরগনার মিনাখা ব্লকের মোহনপুর অঞ্চলের হরিনহুলা আদিবাসী গ্রামে।

 

 

আজকের দিনটি স্বাধীনতা সংগ্রামের একটি তাৎপর্যপূর্ণ দিবস, যা ঐতিহাসিক সাঁওতাল হুল দিবস বা সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস নামে পরিচিত। মহাজন ও দাদন ব্যবসায়ীদের শোষণ-নিপীড়ন এবং ব্রিটিশ পুলিশ-দারোগাদের অত্যাচারে নিষ্পেষিত সাঁওতাল জনগণের মুক্তির লক্ষ্যে ১৮৫৫ সালে সিধু মুরমু ও কানু মুরমু এবং দুই ভাই চান্দ ও ভাইরো ভারতের নিজ গ্রাম ভগনাডিহতে এক বিশাল সমাবেশের ডাক দিয়েছিলেন। সাঁওতাল জনগণ মহাজন ও দাদন ব্যবসায়ীদের নিপীড়নে নিঃস্ব হয়ে পড়েছিল সে সময়। মহাজনের ঋণের ফাঁদে পড়তে হতো বংশপরম্পরায়। স্ত্রী-পুত্ররা মহাজনের সম্পত্তি হয়ে পড়ত। পুলিশের সহায়তায় তাদের গবাদিপশু ও জমি কেড়ে নেওয়া হতো। প্রতিবাদ করলে পাল্টা গ্রেপ্তারের শিকার হতো; এমনকি সে সময় ব্রিটিশ সরকারের উল্টো খড়্গ নেমে আসত তাদের ওপর।

 

 

১৮৫৫ সালেই যে সাঁওতাল বিদ্রোহের সূচনা তা নয়, এর আরও ৭৬ বছর আগে ১৭৮০ সালে সাঁওতাল জননেতা তিলকা মুরমুর (যিনি তিলকা মাঞ্জহী নামে পরিচিত) নেতৃত্বে শোষকদের বিরুদ্ধে সাঁওতাল গণসংগ্রামের সূচনা হয়। তপশিলি ফেডারেশনের রাজ্য সভাপতি সুবল সরদার জানান, হরিনহুলা ভাই ভাই ক্লাব, রিমিঝিমি আদিবাসী সংস্কৃতিক সংস্থা, সুন্দরবন আদিবাসী জাগরন সমিতি, সংগ্রামী আদিবাসী মঞ্চ, আদিবাসী সেংগেল অভিযান, পশ্চিমবঙ্গ আদিবাসী চেতনা সমিতি এবং ভারতের সংবিধানের জনক বাবাসাহেব ডঃ আম্বেদকর প্রতিষ্ঠিত অল ইন্ডিয়া সংগঠন  তপশিলি ফেডারেশন উদ্যোগে এই মহান দিনটি পালন করা হবে আপনিও আসুন।‘

Related Articles

Back to top button
Close