fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তৃণমূল কর্মীকে মারধর, উত্তপ্ত ঝাড়গ্রামের জামবনি

নিজস্ব প্রতিনিধি (ঝাড়গ্রাম): তৃণমূল কর্মীকে মারধরের ঘটনা ঘিরে উত্তেজনা ছড়াল ঝাড়গ্রামের জামবনি জেলায়। তৃণমূলের অভিযোগ বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে আসার জন্য ওই কর্মীকে এইভাবে আক্রান্ত হতে হল। এই ঘটনার প্রতিবাদে এদিন শুক্রবার পথ অবরোধ করেন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাকর্মীরা। এদিন জামবনি থানার সামনে দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে রাস্তায় বসে পথ অবরোধ শুরু করেন তারা। পরে এসডিপিও আশ্বাস পাওয়ার পরেই অবরোধ তুলে নেয় তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

উল্লেখ্য বৃহস্পতিবার জামবনি থানার খাটখুরা এলাকায় পেট্রোল, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচীর করেছিল তৃণমূলের কর্মীরা। ওই দিন বিক্ষোভ কর্মসূচীর পর বিজেপি ছেড়ে বেশ কিছু মানুষজন তৃণমূলে যোগদান করেন। যোগদান করার পর বৃহস্পতিবার রাতে যোগদান ওই তৃণমূল কর্মীদের উপর চড়াও হয়ে মারধরের ঘটনা ঘটে। পরে এদিন সকালে তৃণমূলের ব্লক সভাপতি নীশিথ মাহাতর নেতৃত্বে জামবনি থানার সামনে দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে পথ অবরোধ বসেন তৃণমূল কর্মীরা। এদিকে পথ অবরোধের জের বন্ধ হয়ে যায় চলাচল। সমস্যায় পড়েন সাধারন পথ চলতি মানুষজনেরা। পরে এসডিপিও ঘটনাস্থলে এসে আশ্বাস দেওয়ার পরেই অবরোধ তুলে নেন।

আরও পড়ুন:The unstoppable Horses of Music

জামবনি ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি নীশিথ মাহাত বলেন, “আমাদের আশঙ্কা আগের থেকেই ছিল। এই ঘটনা বার বার ঘটছে। বিজেপি আমাদের কর্মীদের উপর একাধিক বার চড়াও হয়ে মারধর করেছে। বিজেপি নেতা ভীম সরেন, নিতাই হাটুদেরকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে শাস্তি দিতে হবে। বিজেপি সব সময় এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করছে।

ঝাড়গ্রাম জেলা বিজেপির সভাপতি সুখময় শতপথি বলেন “ওখানে বিজেপি ছেড়ে কেউ তৃণমূলে যায়নি। মারামারির কোনও ঘটনার কথা জানা নেই ।”

Related Articles

Back to top button
Close