fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপি করার অপরাধে মৌলবীর ওপর তৃণমূলের আক্রমণ, উদ্বেগ প্রকাশ সাংসদ জগন্নাথ সরকারের

তৃণমূলের চার নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর দায়ের

শ্যামলকান্তি বিশ্বাস, রানাঘাট: বিজেপি করার অপরাধে আক্রান্ত হলেন এক মৌলবী। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার নদিয়া জেলার শান্তিপুর থানা এলাকার সাহেবডাঙা গ্রামে। মতিয়ার মল্লিক নামে ওই মৌলবী এদিন নমাজ পড়তে স্থানীয় মসজিদে যাওয়ার পথে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হন বলে অভিযোগ। গুরুতর জখম অবস্থায় মতিয়ার মল্লিককে স্থানীয় শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রয়োজনে শক্তি নগর জেলা হাসপাতালে রোগীকে রেফার করা হতে পারে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন শান্তিপুর শহর বিজেপি মন্ডল সভাপতি বিপ্লব কর। তিনি ঘটনার কড়া নিন্দা সহ দোষীদের গ্ৰেফতারের দাবিতে সোচ্চার হন। ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সাংসদ জগন্নাথ সরকার। আগামীকাল ঘটনার প্রতিবাদে শান্তিপুরে ৩৪নং জাতীয় সড়ক অবরোধের কর্মসূচি আছে বিজেপি নেতৃত্বের। তৃণমূলের চার নেতা, কর্মীর বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর করা হয়েছে। এখনও কেউ গ্ৰেফতার হয়নি।

স্থানীয় বিজেপি নেতা বিপ্লববাবুর অভিযোগ, সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্য-সদস্যাগণ যেভাবে সারারাজ্যে শাসক তৃণমূল দল ত্যাগ করে বিজেপি দলে নাম দেখাচ্ছেন, ঘটনায় চিন্তিত তৃণমূল দলটি। ওদের আশঙ্কা নিশ্চিত ভোট ব্যাঙ্কে ভাগ বসাচ্ছে বিজেপি এবং যেনতেন প্রকারে এই উদ্যোগকে বন্ধ করার প্রয়াসে সংখ্যালঘু ভাই-বোন সহ অনেক নেতা নেত্রীকে বুঝিয়ে শুনিয়ে যখন কাজ হচ্ছে না, তখন সরাসরি আক্রমণের পথে নেমেছে এই সমাজ বিরোধীদের মদতদাতা তৃণমূল কংগ্রেস দলটি। তোষণের রাজনীতিতে সিদ্ধহস্ত তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রীর বিভিন্ন বিবৃতিতে বিভিন্ন সময়ে কখনও দুধেল গাই, কখনও যে গরুতে দুধ দেয়, সেই গরুর লাথি খাওয়া ভালো এই সমস্ত উক্তি বার বার শুনে অভ্যস্ত রাজ্যবাসী। তৃণমূল নেত্রী ধরেই নিয়েছিলেন রাজ্যের ত্রিশ শতাংশ সংখ্যালঘু ভোট একদম বাঁধা তার দলের। রাজ্যের শাসক দলের প্রধান প্রতিপক্ষ বিজেপি ধীরে ধীরে ভাগ বসাতে শুরু করেছে, সংখ্যালঘু ভোট ব্যাঙ্কে।

বিপ্লববাবুর বলেন কটাক্ষ করে বলেন, ঘটনায় সিঁদুরে মেঘ বাসা বেঁধেছে তৃণমূলের ভাগ্যাকাশে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই চিন্তার ভাঁজ তৃণমূল নেত্রীর ললাটে। রাজ্যের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে নিয়ে যে তৃণমূল নেত্রী দলীয় স্বার্থে ব্যবহার করছেন, বিষয়টি উপলব্ধি করতে পেরেই রাজ্যের মুসলিম সমাজের বুদ্ধিজীবী মহল নড়েচড়ে বসেছেন। একের পর এক নেতা-নেত্রী তৃণমূল শিবির ত্যাগ করে বিজেপি দলে নাম লেখাচ্ছেন। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় শুরু হয়েছে এই দল পরিবর্তনের তৎপরতা। নদিয়া জেলা ও তার ব্যতিক্রম নয়।

আরও পড়ুন: ‘এ সময়ে সবচেয়ে বড় ভূমিকা নিতে চলেছে টেকনোলজি’, IIT সমাবর্তনে বক্তব্য প্রধানমন্ত্রীর

শান্তিপুর বিধানসভা এলাকার সাহেব ডাঙাগ্রামের বাসিন্দা মৌলবী মতিয়ার মল্লিক আজ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্তের ঘটনা তারই এক উদাহরণ।

Related Articles

Back to top button
Close