fbpx
কলকাতাহেডলাইন

শুভেন্দুকে ধরে রাখতে মরিয়া তৃণমূল!

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: একুশে শুভেন্দু আধিকারি কার? তা নিয়ে চলছে রাজনৈতিক জল্পনা। যদিও এ বিষয়ে রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী এখনও প্রকাশ্যে মুখ খোলেনি। চলছে দড়ি টানাটানি সব রাজনৈতিক দলের মধ্যেই। আসরে নেমেছে শাসক শিবিরও। তারাও দলের হেবি ওয়েট নেতাকে দলেই ধরে রাখতে চায়।

রাজনৈতিক মহলে ভালোই জলঘোলা হচ্ছে শুভেন্দু অধিকারী কে নিয়ে। সারা রাজ্যের শাসক দল কোন মতেই ছাড়তে চাইছেন না পরিবহন মন্ত্রীকে। অন্যদিকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী তাকে ঘরে ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন ইতিমধ্যেই। এদিকে বিজেপি নেতার যোগদান প্রসঙ্গে যে গুঞ্জন উঠেছে তাও একেবারে উড়িয়ে দেয়নি গেরুয়া শিবির। সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা যাচ্ছে, সোমবারের পর মঙ্গলবার রাতে ফের একবার দলীয় সাংসদ এর সঙ্গে গোপন বৈঠক করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, ভাইফোঁটার সন্ধ্যেতে কলকাতায় রাজ্যের শাসকদলের এক বর্ষীয়ান নেতার সঙ্গে বৈঠক করেন পরিবহন মন্ত্রী। পুরো বিষয়টি রাখা হয়েছে কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে।

এতটাই গোপনভাবে বৈঠক করা হয়েছে যে সেখানে এক পরিচিত ব্যক্তির গাড়িতে নিরাপত্তারক্ষীদের ছাড়াই পৌছল শুভেন্দু বাবু। এদিকে গোপন সূত্রে খবর একেবারে রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয় সেদিন। ওই বৈঠকের অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহ প্রশান্ত কিশোরের ভূমিকা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী। যদি এ প্রসঙ্গে এখনো দলের তরফে কিছু মন্তব্য করা হয়নি।

আরও পড়ুন: শুরু হল ভোটার তালিকা সংশোধন

শুভেন্দু অধিকারীর বারংবার কয়েকটি পদক্ষেপ নিয়ে তিনি আদৌ শাসকদলের থাকবেন কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। নন্দীগ্রামে তার সভায় ভারতমাতা জিন্দাবাদ স্লোগান থেকে শুরু করে একের পর এক বাক্যবাণে রাজ্যের শাসকদলকে বিদ্ধ করা সবকিছুতেই রাজনৈতিক জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। এই অবস্থায় শুভেন্দু অধিকারীর বাড়িতে ছুটে গিয়েছেন প্রশান্ত কিশোর বৈঠক করেছেন তার বাবা শিশির অধিকারীর সঙ্গে। এটাতেও সরল হয়নি সমীকরণ। শুভেন্দু বাবু যাতে দল না ছাড়েন আপাতত এখন সেই চেষ্টায় শুরু করেছে ঘাসফুল শিবির।

Related Articles

Back to top button
Close