fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আসানসোলে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল প্রকাশ্যে, একই জায়গায় একই সময় দলের দুটি সভা ঘিরে বিতর্ক

শুভেন্দু বন্দোপাধ্যায়, আসানসোল: একই সঙ্গে একই সময়ে পাশাপাশি জায়গায় দুটি সভা রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের। রবিবার আসানসোল উত্তর বিধানসভা এলাকায় এই সভা ঘিরে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। মাত্র ৫০ মিটারের মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের পাল্টা দুটি সভা ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয় আসানসোল পুরনিগমের ২৮ নং ওয়ার্ডের রেলপারের জাহাঙ্গির মহল্লা এলাকায়। তারমধ্যে একটি সভায় উপস্থিত ছিলেন আসানসোল উত্তর বিধানসভার বিধায়ক তথা রাজ্যের আইন ও শ্রম মন্ত্রী মলয় ঘটক। এলাকার কৃতী মেধাবী পড়ুয়াদের সেই সভা থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এলাকার উন্নয়নের খতিয়ানও তুলে ধরা হয় সেই সভায়।
অন্য সভায় উপস্থিত ছিলেন আসানসোল পুরনিগমের বরো চেয়ারম্যান গোলাম সরবর ও তৃণমূল কংগ্রেসের কাউন্সিলাররা। সেই সভায় তৃণমূল কংগ্রেস জিন্দাবাদ ধ্বনি তুলে রেলপার এলাকা কি পেয়েছে তা নিয়ে পরোক্ষভাবে প্রশ্ন ছুড়ে দেওয়া হয় মন্ত্রীর উদ্দেশ্যেই। রবিবারের এই দুটি সভা ঘিরে শাসক দলের গোষ্ঠকোন্দল যে প্রকাশ্যে চলে এলো, তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা।

মন্ত্রী মলয় ঘটক যে সভায় উপস্থিতি ছিলেন তা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নামেক আয়োজন হলেও, তার মূল উদ্যোক্তা ছিলেন এলাকার বিদায়ী তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি উৎপল সিনহা। এই সভার ৫০ মিটার দূরে বরো চেয়ারম্যান তথা দলের সংখ্যালঘু সেলের বিদায়ী জেলা সভাপতি গোলাম সরবর, ২৫ নং ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেসের কাউন্সিলার হাজি নাসিম আনসারির নেতৃত্বে পৃথক সভাটি হয়। সেখানেও এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার তরফে ত্রিপল বিলি করা হয়। ওই সভাতেই কাউন্সিলার হাজি নাসিম আনসারি প্রশ্ন তোলেন, এই রেলপার এলাকায় কলেজ গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মন্ত্রী মলয় ঘটক। কোথায় পড়বে স্থানীয় পড়ুয়ারা?

এই প্রসঙ্গে বিদায়ী ব্লক সভাপতি উৎপল সিনহা বলেন, বিরোধীদের মদতে দলেরই কিছু নেতা মলয়বাবুর বদনাম করার চেষ্টা করছেন। অন্যদিকে কাউন্সিলার হাজি নাসিম আনসারি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের নেতৃত্ব সর্বত্র উন্নয়ন হচ্ছে। এখানে ২০১৭ সালে কলেজ করার কথা বলেছিলেন স্থানীয় বিধায়ক তথা মন্ত্রী মলয় ঘটক। তা না হওয়ায় এই প্রশ্ন তোলার মধ্যে অন্যায়ের কিছু নেই বলে আমার মনে হয়। তবে দলের জেলা চেয়ারম্যান হিসাবে মন্ত্রী মলয় ঘটক এই প্রসঙ্গে কোন মন্তব্য করতে চাননি।

Related Articles

Back to top button
Close