fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কাটোয়ায় তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে একশো দিনের কাজে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কাটোয়া: একশো দিনের কাজ প্রকল্পে ভুয়ো মাস্টাররোল দেখিয়ে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠল এক  তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। কাটোয়া থানা এলাকার ছোট মেইগাছি গ্রামে এই ঘটনা ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়

টাকা ফেরতের দাবিতে অভিযুক্ত  তৃণমূল নেতা পার্থ ঘোষকে নিয়ে মঙ্গলবার গ্রামে সালিশিসভা বসানো হয়। শেষে তিনি মুচলেকা দিয়ে নিজের দোষ কবুল করলে গ্রামবাসীরা শান্ত হন।

এদিকে এই ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়েছে শাসকদল। যদিও এই বিষয়ে কাটোয়ার তৃণমূল বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “বিষয়টি বিস্তারিত আমার জানা নেই। তবে টাকা তছরুপের অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে দল ব্যবস্থা নেবে।” জানা গিয়েছে, পার্থ ঘোষ নামে ওই তৃনমুল নেতা কাটোয়া-২ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য। তাঁর বিরুদ্ধে একশ দিনের কাজ প্রকল্পে ভুয়ো মাস্টার রোল দেখিয়ে পাঁচ থেকে সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তুলেছেন সিঙ্গি পঞ্চায়েতের ছোট মেইগাছি গ্রামের বাসিন্দারা।

স্থানীয় বাসিন্দা পিন্টু ঘোষ, সন্ধ্যা মাঝি,উজ্জ্বল মন্ডলরা বলেন, ‘আমাদের গ্রামের কোনও জবকার্ডধারী ২০১৭-১৮ এবং ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরের একশ দিনের কাজ প্রকল্পের মজুরি পাননি। সম্প্রতি জানতে পারি লকডাউনের সময় কাটোয়া-২ পঞ্চায়েত সমিতি অফিস থেকে ওই প্রকল্পের মজুরির টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে। পরে জানা যায়, নিজের পরিবারের লোকজন ও আশপাশের গ্রামের বেশ কয়েকজনের নাম দেখিয়ে প্রায় পাঁচ থেকে সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন পার্থ ঘোষ।”

ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই পার্থ ঘোষকে টাকা ফেরতে জন্য চাপ দিতে শুরু করেন গ্রামিবাসীরা। এদিন ছোট মেইগাছি গ্রামের মোড়কতলায় অভিযুক্ত নেতাকে নিয়ে সালিশি সভা বসানো হয়। ওই সভায় তিনি আর্থিক তছরুপের কথা কার্যত স্বীকার করে নেন। তবে পাঁচ বা সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা নয় ১ লক্ষ ৮০ হাজার হাজার টাকা তছরুপের কথা তিনি স্বীকার করেছেন বলে খবর। শেষে টাকা ফেরতের মুচলেকা দিয়ে গ্রামবাসীদের হাত থেকে নিস্তার পান অভিযুক্ত ওই তৃনমুল নেতা।

এই বিষয়ে অভিযুক্ত তৃনমুল নেতা পার্থ ঘোষ বলেন, “আমার ভুল হয়েছে।” এর বেশি তিনি আর কোনও মন্তব্য করতে চাননি। ছোট মেইগাছি গ্রামে একশ দিনের কাজে অনিয়ম ও নয়ছয়ের অভিযোগ তুলে গ্রামবাসীরা কাটোয়া মহকুমা শাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close