fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

লাভপুরে তৃণমূল নেতা খুনে মনিরুল ইসলাম সহ সাত জনের নামে অভিযোগ দায়ের, গ্রেফতার পাঁচ

নিজস্ব সংবাদদাতা,বোলপুর:  লাভপুরে তৃণমূল নেতা খুনে বিজেপি নেতা মনিরুল ইসলাম তার ভাই সহ সাত জনের নামে লাভপুর থানায় অভিযোগ দায়ের হল। এদের মধ্যে পাঁচ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের বোলপুর মহকুমা আদালতে তোলা হলে ১৪ দিনের পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তৃণমূলের অভিযোগ অভিযুক্তরা প্রত্যেকে বিজেপির সঙ্গে যুক্ত।

লাভপুর থানার ঠিবা পঞ্চায়েতের ভাটরা গ্রামের তৃণমূলের প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্য সহদেব বাগদী নৃশংস ভাবে খুন হওয়ার একদিন পরে মৃতের ছিলে সোমনাথ বাগদি ৭ জনের নামে লাভপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে। এদের মধ্যে পাঁচ জন ভাটরা গ্রামের বাসিন্দা হলেও বাকী দুজন লাভপুরের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক তথা বর্তমানে বিজেপি নেত মনিরুল ইসলাম এবং তার ভাই আনারুল ইসলাম। তাদের বিরুদ্ধে খুনের ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযোগ দায়ের হতেই পুলিশ রবিবার সারা রাত তল্লাশি চালিয়ে গোপিনাথ বাগদি,বিষ্টু বাগদি,বিমল বাগদি,পবন বাগদি এবং ভরত বাগদিকে গ্রেফতার করে। এদের বিরুদ্ধে ৩০২,২০১ এবং ১২০বি ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযুক্তদের বোলপুর মহকুম আদালতে তোলা হলে পুলিশ ১৪ দিনের পুলিশি হেপাজত চাইলে ,বিচারপতি তা মঞ্জুর করেন।

আরও পড়ুন: শ্যামাপ্রসাদের জন্য‌ই ভারতের মানচিত্রে পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে: দিলীপ ঘোষ

প্রসঙ্গত, গত ৪ই জুলাই সহদেব বাগদী সকাল ৭টা নাগাদ দুটি বলদ গরু নিয়ে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যায় জমিতে চাষ করতে। বিকাল ৫টা নাগাদ ভাটরা গ্রামের থেকে প্রায় ২কিমি দূরে মাঠের মধ্যে কাদাজলে পড়ে থাকা সহদেবের গলাকাটা মৃতদেহ দেখতে পায় বাড়ির লোকেরা। পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে। ধারলো অস্ত্র দিয়ে কেউ বা কারা ঘাড়ের দিকে কোপ মারে, এর ফলে ঘাড়ের নীচে গভীর ক্ষত হয়।  এই বিষয়ে মনিরুল ইসলাম বলেন, আমি বর্তমানে দিল্লিতে রয়েছি। আমি নিজে অসুস্থ, মিথ্যা করে তৃনমূল আমার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ এনেছে।

Related Articles

Back to top button
Close