fbpx
কলকাতাহেডলাইন

তৃণমূলের ২১ জুলাই পালিত হবে বুথে বুথে ভার্চুয়াল সভা, নির্দেশ মমতার

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা:  ‘২১ জুলাই বুথে বুথে শহিদ দিবস পালন করুন।’ দলীয় কর্মীদের নির্দেশ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার কার্যত আয়োজিত হয়ে গেল তৃণমূলের ২১ জুলাই এর প্রস্তুতি সভা। এদিন মুখ্যমন্ত্রী কোরোনা আবহে কালীঘাটে নিজের বাসভবন থেকে ভারচুয়ালি কথা বলেন দলের নেতা, মন্ত্রী, বিধায়ক, সাংসদ সকলের সঙ্গে। মমতা বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে এবার আর বড় করে একুশে জুলাই করা সম্ভব হচ্ছে না। তাই বুথে বুথে কর্মীদের নিয়ে একুশে জুলাই শহীদ দিবস পালন করতে হবে। শহীদ বেদীতে মাল্যদান ও পতাকা উত্তোলন করে পালন করতে হবে এই কর্মসূচি।’ যদিও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত থাকতে না পারলেও একটি নির্দিষ্ট জায়গা থেকে বক্তৃতা দেবেন। ২১ তারিখ বুথে বুথে শহীদ বেদী তৈরি করে শ্রদ্ধা জানানো হবে। সেই সঙ্গে দুপুর দুটোর সময় ঐদিন বক্তব্য রাখবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ধর্মতলা শুধুমাত্র শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হবে। অন্য জায়গা থেকে বক্তব্য রাখবেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই স্থান পরে জানান হবে।
যেভাবে একের পর এক দলীয় নেতাদের দুনিতি সামনে আসছে তাতে অস্ব্স্তিতে পড়তে হচ্চে দলকে। তাই এদিন মমতা দলীয় কর্মীদের হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘আমার দলে কর্মীরাই আমার সম্পদ। যারা ভাবছেন দুর্নীতি করে দলকে বদনাম করবেন, তাদের বিরুদ্ধে দল কড়া ব্যবস্থা নেবে। প্রয়োজনে আমি নতুন নেতা তৈরি করে নেব। তবে দুর্নীতির সঙ্গে আপস করব না। আমফান ঘূর্ণিঝড়েরদুর্যোগ ও ত্রাণ নিয়ে যারা দুর্নীতি করেছেন তাদের কোন ভাবে ছাড়া হবে না। প্রধান হোক বা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দুর্নীতির প্রমাণ হলে তার বিরুদ্ধে প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে। কেউ যেন তাদের বাঁচানোর চেষ্টা না করেন। বিজেপি নেতারা রাস্তায় নামছেন সরকারের বিরুদ্ধে প্রচার করছে, মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে। আপনারা ঘরে চুপচাপ বসে আছেন কেন?
সামাজিক দূরত্ব মেনে আপনারাও প্রচার করুন। তারা যে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে সেগুলি তুলে ধরুন।’
পাশাপাশি মমতা আরও বলেন, ‘প্রত্যেক বিধায়ককে নিজের বিধানসভায় জিততেই হবে। তাই নিবিড় জনসংযোগ করুন। জানি কোভিড সংক্রমণ রয়েছে। তার মধ্যেও সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং মেনে জনসংযোগের সঙ্গে জনবিরোধী কার্যকলাপ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সরব হতে হবে। রেল ও কয়লার বেসরকারিকরণের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সরকারের পদক্ষেপ নিচ্ছে তা সাধারণ মানুষকে বোঝাতে হবে। এলাকার মানুষকে কাছে গিয়ে বলতে হবে রাজ্য সরকার কি কাজ করেছে। কেন্দ্রীয় সরকার কিভাবে রাজ্যকে বঞ্চনা করেছে।  পেট্রোল-ডিজেলের দাম যেভাবে দিন দিন বাড়ছে তা নিয়ে বুথে বুথে প্রতিবাদ সংগঠিত করতে হবে। দলীয় নির্দেশ মেনে সেইসব কর্মসূচি পালন করতে হবে বিধায়কদের। বিধায়কদেরই দায়িত্ব নিতে হবে। উত্তরবঙ্গের নেতারা সবাই মিলে একসঙ্গে কাজ করুন। পরস্পরের সঙ্গে আলোচনা করে গুরুত্ব দিয়ে কাজ ভাগ করে নিন।’
আগামী ৭ তারিখ থেকে লাগাতার কর্মসূচি নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে নামছে তৃণমূল কংগ্রেস। এক একদিন এক একটি ইস্যুতে কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে। পেট্রোল-ডিজেল, রেলের বেসরকারিকরণ, কোল ইন্ডিয়া সহ একাধিক ক্ষেত্রে নিয়ে প্রতিবাদ দেখাবে তৃণমূল কংগ্রেস।এ প্রসঙ্গে মমতা বলেন, ‘৬-১৩ জুলাই কর্মসূচি দিয়ে দেবে দল। তা নিজের এলাকায় এলাকায় পালন করতে হবে বিধায়কদের।’ এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের নতুন কোষাধ্যক্ষ নির্বাচিত হলেন শুভাশিস চক্রবর্তী। তমোনাশ ঘোষের মৃত্যুতে দলের কোষাধ্যক্ষের জায়গা খালি হয়েছিল। সেই স্থানে বসানো হলো রাজ্যসভার সাংসদ শুভাশিস চক্রবর্তীকে।

Related Articles

Back to top button
Close