fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বালিবোঝাই লরি উল্টে মৃত খালাসী, উত্তেজনা

জয়দেব লাহা,দুর্গাপুর: প্রাক বৃষ্টি শুরু হয়েছে। দুর্বল হয়ে পড়েছে নদী গর্ভের রাস্তা। আর ওই রাস্তায় বালি বোঝাই লরি উল্টে মৃত্যু হল লরি খালাসীর। ওভারলোডিং বলি বোঝাই লরি যাতায়াতের প্রতিবাদে বিক্ষোভ এলাকাবাসীর। রবিবার ঘটনাটি ঘটেছে, দামোদর নদীর ওপর কাঁকসার সিলামপুর সংলগ্ন ঘাটে।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃতের নাম রথীন মাঝি(২৬) চাকদহ র বাসিন্দা। ঘটনায় জানা গেছে, লকডাউনের মধ্যেও অবাধে চলছে দামোদর নদীতে বালি উত্তোলন। বৈধ ঘাটের পাশাপাশি অবাধে চলছে অবৈধঘাট। কোলকাতা, হাওড়া থেকে লরি ঢুকছে এলাকায়। করোনা আবহে বাইরে লরি ঢোকায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। তার ওপর প্রাক বর্ষার বৃষ্টি শুরু হয়েছে। নদীতে জল বয়ছে। তার জেরে দুর্বল হয়ে পড়েছে নদী গর্ভের রাস্তা। এদিন খাদান থেকে বালি বোঝাই করে নদীর পাড়ে ওঠার সময় বেসামাল হয়ে উল্টে যায় একটি লরি। তাতেই চাপা পড়ে লরির খালাসী। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে আশপাশের বাসিন্দারা ছুটে আসে। নদীর জলে চাপা পড়ে থাকা খালাসীর মৃতদেহ উদ্ধার করে।
গ্রামবাসীরা জানান,” ঘটনাস্থলের নদীজলে প্রায়দিনই এলাকার জনা দশেক ছেলে ওইসময় স্নান করে। এদিন বৃষ্টির জন্য স্নানে যায়নি। না হলে বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত।” বাসিন্দাদের আরও অভিযোগ,” প্রতিদিন অবৈধ বালির লরি যাতায়াতে অতিষ্ট। প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। ওভারলোডিং বালি বোঝাই লরি প্রায়ই বেসামাল হয়ে উল্টে যায়।”
ঘটনার পর এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বালি বোঝাই লরি চলাচল বন্ধ করে দেয় বাসিন্দারা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় সোনামুখী থানার পুলিশ। একই সঙ্গে কাঁকসা থানার পুলিশও পৌঁছায়। বিকাল নাগাদ সোনামুখী থানার পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। পুলিশ জানিয়েছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক। ঘটনার তদন্ত চলছে।”

Related Articles

Back to top button
Close