fbpx
আন্তর্জাতিকআমেরিকাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

কৃষ্ণাঙ্গ বিক্ষোভে জ্বলছে ট্রাম্পের দেশ, ২৫ শহরে জারি কার্ফু

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  পুলিশের নির্যাতনে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুতে ফুঁসছে দেশ। রাস্তায় নেমে পুলিশের গাড়ি জ্বালিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। অস্বস্তিতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্প। সেনা নামিয়েও সামাল দেওয়া যাচ্ছে না কৃষ্ণাঙ্গদের বিক্ষোভকে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতির এতটাই অবনতি ঘটছে যে বিক্ষোভ সামাল দিতে রবিবার বিকেল পর্যন্ত দেশের ১৬ অঙ্গরাজ্যের ২৫ শহরে জারি করা হয়েছে কার্ফু। ক্যালিফোর্নিয়ার গর্ভনর গেভিন নিউসম রাজ্যে জরুরি অবস্থা জারির পাশাপাশি সেনা তলব করেছেন। নিউ ইয়র্কে কৃষ্ণাঙ্গ বিক্ষোভকারীদের ট্রাক চাপা দিয়ে পুলিশ মাসরার চেষ্টা করায় সেখানকার পরিস্থিতি আরও অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছে। বিক্ষোভকারীদের শান্ত করতে ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন নিউ ইয়র্কের মেয়র।

করোনার মৃত্যুভয়, সামজিক দূরত্বকে শিকেয় তুলেছেন আমেরিকাবাসী। এক নিরীহ কৃষ্ণাঙ্গের মৃত্যুতে জ্বলছে আমেরিকা। কোথাও মাস্ক পরে কোথাও বা করোনার নিয়মাবলীকে অগ্রাহ্য করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন হাজার হাজার প্রতিবাদী। পুলিশের গাড়ি-সহ রাস্তায় নেমে যত্রতত্র ভাঙচুর চালাচ্ছেন তাঁরা। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে এদিন রবার বুলেট ছোড়ে পুলিশ। কিন্তু তাতেও বাগে আনা যায়নি প্রতিবাদীদের। বিক্ষোভকারীদের ডোন্ট কেয়ার স্বভাবে নাজেহাল হয়েছে পুলিশ। অস্থির পরিস্থিতি সামলাতে রবিবার আমেরিকার ৬টি প্রদেশে ন্যাশনাল গার্ডের ডাক পড়ে।

আরও পড়ুন: জি৭ সামিট পিছিয়ে দিতে পারেন ট্রাম্প, বৈঠকে আমন্ত্রণ ভারত

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকণ্ডে ইতিমধ্যে মিনিয়াপোলিস পুলিশ বিভাগের চার অফিসারকে বরখাস্ত করা হয়েছে। আটলান্টায় কার্ফু অমান্য করেই বিক্ষোভকারীরা বিক্ষোভে সামিল হয়েছিলেন। ফিলাডেলফিয়াতে বিক্ষোভকারীদের হামলায় ১৩ পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন। মায়ামি, পোর্টল্যান্ড ও লুইজভিলেতে রাতব্যাপী কার্ফু জারি করা হয়েছে। কিন্তু তাতেও কৃষ্ণাঙ্গদের বিক্ষোভ সামলানো যায়নি।

Related Articles

Back to top button
Close