fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

তুরস্কে বিধ্বংসী ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৬, জোরকদমে চলছে উদ্ধারকার্য

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: তুরস্কে বিধ্বংসী ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৬। আহতের সংখ্যা ৮০৪ ছাড়িয়েছে। শুক্রবার এজিয়ান সাগরে শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে তুরস্ক ও গ্রিস। রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৭। কম্পনের উৎপত্তিস্থল ছিল এজিয়ান সাগরের ১৬.৫ কিমি গভীরে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তুরস্কের সংবাদমাধ্যমগুলি জানিয়েছে, ইজমিরের বড় ভূমিকম্পের পরে ১৯৬ বার আফটার শক অনুভূত হয়েছিল।

ভূমিকম্পে মৃতদের পরিবারের প্রতি শোকপ্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান। তিনি বলেন, যারা এ দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের প্রতি আমি সহর্মিতা জানাচ্ছি। আমি আশা করি, আহতরা খুব দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠবেন।

এজিয়ান শহরের ২০টি বহুতল ধসে পড়েছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে ধ্বংসস্তুপ থেকে মানুষকে উদ্ধার করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। স্থানীয় চ্যানেলের টিভি ফুটেছে দেখা গেছে তুরস্কের বিস্তৃত ইজমির প্রদেশের কিছু অংশে পাশাপাশি গ্রীক দ্বীপ সামোসে সিসেমি এবং সেফেরিহিসারের রাস্তায় জলের বন্যা দেখা গিয়েছিল, কর্মকর্তারা “মিনি সুনামি” হিসাবে বর্ণনা করেছেন। তবে সুনামির কোনও সতর্কতা জারি করা হয়নি।

ইজমির প্রদেশের তুর্কি শহর সিয়াসিক শহরে সাংবাদিক হিসাবে কাজ করা এবং অতিথিশালা চালানো ইডিল গুনগর জানিয়েছেন যে ভূমিকম্পের চেয়ে জলের স্রোতের জন্য এই অঞ্চলটি বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল। তিনি আরও বলেন , তার অতিথিশালা, এক ১০০ বছরের পুরনো বিল্ডিংয়ে ডুবে গেছে এবং এতে মাছ সাঁতার কাটছিল। ইডিল গুনগর ভয়ার্ত কন্ঠে জানিয়েছেন, “সকলেই শান্ত, তবে হতবাক এবং আমরা ভাবছি যে সুনামি যদি দ্বিতীয়বার আসে তবে কি হবে।”

গ্রীক প্রধানমন্ত্রী কিরিয়াকোস মিতসোটাকিস টুইটারে বলেছেন, তিনি তার তুরস্কের সমকক্ষের সঙ্গে কথা বলেছেন। পূর্ব ভূমধ্যসাগরে বিদ্যুতের দাবি নিয়ে দু’দেশের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। মিতসোটাকিস লিখেছেন, “আমি রাষ্ট্রপতিকে এরদোয়ান দু’দেশকে ভয়াবহ ভূমিকম্পের ফলে মর্মান্তিক ক্ষয়ক্ষতির জন্য সমবেদনা জানিয়েছি। আমাদের মতপার্থক্য যাই হোক না কেন, এই সময়ে যখন আমাদের জনগণকে একত্রে দাঁড়ানো দরকার,” মিতসোটাকিস লিখেছিলেন। পাশাপাশি তুরস্কের প্রেসিডেন্ট গ্রিসের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে টুইট করেন।

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট ডেভিড সাসোলি টুইট করেছেন, ‘এজিয়ান সাগরে আঘাত হানার শক্তিশালী ভূমিকম্পে আক্রান্ত গ্রীক এবং তুর্কি সকল লোকের সঙ্গে রয়েছে। অন্যান্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্যান্য সংস্থাগুলির সঙ্গে আমরা পরিস্থিতি খুব কাছ থেকে অনুসরণ করছি। আমরা সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত”

 

 

Related Articles

Back to top button
Close