fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দিঘায় এসে আত্মহত্যার চেষ্টা দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রের, তদন্তে পুলিশ

মিলন পণ্ডা, দিঘা (পূর্ব মেদিনীপুর): বাড়ি থেকে পালিয়ে সৈকত নগরী দিঘার এসে হাতের শিরা ও গলায় নলী কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন পশ্চিম মেদিনীপুরে দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র। হোটেল কর্মীদের সহযোগিতার ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে দিঘা স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সঙ্কটজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন বলে জানা গেছে। ঠিক কি কারণে ওই যুবক আত্মহত্যা চেষ্টা করলেন তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পরিবারের সদস্যরা বাড়ি থেকে উঠে আসার জন্য রওনা দিয়েছে।

আরও পড়ুন: লাদাখের উত্তপ্ত বাতাবরণের মধ্যে আটক করা চিনা সেনাকে ফিরিয়ে দিল ভারত

জানা গেছে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার পিংলা থানার ধনেশ্বরপুর মধ্যবাড় গ্রামের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাএ দীপঙ্কর দাস (১৯)। বাড়ি থেকে লুকিয়ে দিঘা চলে আসে। সকাল থেকে দিঘা বেড়ানোর পর সন্ধ্যায় ওল্ড দিঘার একটি বেসরকারি হোটেলের ওঠে ওই যুবক। হোটেলের কর্মচারী একা যুবককে প্রথমে রুম দিতে রাজি হয়নি। রুম নেওয়ার জন্য অনেক অনুরোধ করেন ওই পর্ষটক যুবক। অবশেষে হোটেলের কর্মচারী মালিকের সঙ্গে কথা বলতে চলে যান। কিছু মধ্যে ঘিরে এসে দেখো ধারালো অস্ত্র দিয়ে হাতের শিরা ও গলায় নলী কেটে আত্মহত্যা চেষ্টা করছে ওই পর্ষটক যুবক। কোনও রকমের দ্রুত উদ্ধার করে দিঘা হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘটনার খবর দেওয়ার দিঘা উপকুল থানার পুলিশকে। ওই যুবক সঙ্কটজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন বলে হাসপাতাল সূএে জানা গেছে। পুলিশ পর্যটক যুবকের পরিবারের সদস্যদের খবর পাঠিয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে দিঘা উপকুল থানার পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close