fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

যুবককে পিটিয়ে মারার অভিযোগে কালনায় যাবজ্জীবন দুই ভাইয়ের

নিজস্ব সংবাদদাতা, কালনা: এক যুবককে পিটিয়ে মারার অভিযোগে শুক্রবার দুইভাইয়ের যাবজ্জীবনের সাজা হল পূর্ব বর্ধমানের কালনা আদালতে।সাজা প্রাপ্তরা হল সমীর দাস ও লব দাস।যদিও সাজা প্রাপ্তদের পরিবারের লোকজন এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যাবেন বলে জানান।

আদালতসূত্রে জানা যায় যে, সমীর দাস ও লব দাস নামে এই দুই সাজা প্রাপ্তের বাড়ি কালনা শহরের কাঁসাড়িপাড়ায়। আর ওই এলাকাতেই পুরসভার পানীয় জলের কল ভাঙার প্রতিবাদ করায় প্রতিবেশী এক যুবককে পিটিয়ে মারার অভিযোগ ছিল সাজাপ্রাপ্ত এই দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে। যদিও এইদিন তাদেরই মা নন্দরানী দাসকে বেকসুর খালাস দেন।

২০১৮ সালে ৩০ সেপ্টেম্বর এই দুই ভাই রাত ৯টা নাগাদ সকলের ব্যবহারযোগ্য পানীয় জলের কল ভাঙচ্ছিলেন। সেইসময় তা দেখে প্রতিবাদ করেন প্রতিবেশী বাবলু চৌহান ও তার ছেলে বিশ্বজিৎ চৌহান। এরপরেই এই দুই ভাই হাতুরি দিয়ে বাবা ও ছেলেকে ব্যাপক মারধর করলে রক্তাক্ত ও আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে কালনা ও পরে কলকাতায় চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। বাবা প্রাণে বেঁচে গেলেও কিছুদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর বিশ্বজিৎ মারা যায়। এই ঘটনার পর কালনা থানায় অভিযোগ দায়ের হয়। এরপরেই পুলিস সমীর দাস, লব দাস ও তাদের মা নন্দরানী দাসকে গ্ৰেফতার করে। প্রায় দুই বছর কালনা আদালতে মামলা চলার পর পুলিস সহ ১৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহন শেষে কালনা অতিরিক্ত জেলা দায়রা আদালতের বিচারক তপন কুমার মণ্ডল দুইভাই সমীর দাস ও লব দাসকে দোষী সামস্ত করেন। শুক্রবার বিচারক দুইভাইকে যাবজ্জীবন সাজা ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানার রায় ঘোষণা করেন।

সরকারি আইনজীবি মলয় পাঁজা বলেন, এই নির্মম ও নৃশংস একটি ঘটনায় বিচারক সাক্ষী ও তথ্য প্রমানের উপর ভিত্তি করে দুইভাইকে যাবজ্জীবন সাজা শোনান।

Related Articles

Back to top button
Close