fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

শপথগ্রহণের ২ দিন পরেই ইস্তফা দিলেন বিহারের ভুল জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া শিক্ষামন্ত্রী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: বিহারের শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার ৭২ ঘন্টার মধ্যে ইস্তফা দিলেন মেওয়ালাল চৌধুরী। জাতীয় সঙ্গীত  ভুল গাওয়া ছাড়া একাধিক অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। একাধিক অভিযোগে অভিযুক্ত হওয়ার পরেও কিভাবে শিক্ষামন্ত্রীর মতন গুরত্বপূর্ণ পদ সামলাবেন তিনি? এই প্রশ্নই উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। মহাজোটের পক্ষ থেকে এই অভিযোগে সরব হয়েছিলেন একাধিক নেতারা। এরপরেই ইস্তফা দেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের খুব ঘনিষ্ঠ হওয়ার কারণে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ বিরোধীদের। তিন বছর আগে ২০১৭ সালে মেওয়ালাল চৌধুরী ভাগলপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য থাকাকালীন নিয়ম বহির্ভূতভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে সহকারী অধ্যাপক ও জুনিয়র বিজ্ঞানীদের নিয়োগ করেছিলেন। সেইসময় বিহারে বিরোধী দলে থাকা বিজেপি নেতারাও মেওয়ালালের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন। মেওয়ালাল চৌধুরীকে সেইসময় দল থেকে সাসপেন্ডও করা হয়।

আরও পড়ুন- মাস্ক ছাড়া রাস্তায় বেরোলেই ২,০০০ টাকা জরিমানা, ঘোষণা দিল্লি সরকারের

গত সোমবারই নীতীশ কুমারের সঙ্গে মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন মেওয়ালাল চৌধুরী। এবারেও শিক্ষা দফতর সামলানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। আর তার পর থেকেই নীতীশ সরকারের বিরুদ্ধে অলআউট আক্রমণে ঝাঁপিয়ে পড়েন আরজেডি নেতারা। দুর্নীতিতে অভিযুক্ত একজনকে কিভাবে শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হল, সেই নিয়ে প্রশ্ন তোলেন জেডিইউ সুপ্রিমো তেজস্বী যাদব। অবশেষে নিজেই ইস্তফার সিদ্ধান্ত নেন বিহারের শিক্ষামন্ত্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরেই মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের কাছে ইস্তফাপত্র পাঠিয়ে দেন তিনি।

 

Related Articles

Back to top button
Close