fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

করোনায় বিশ্বের উন্নয়ন পিছিয়েছে দুই দশক: গেটস ফাউন্ডেশন

ওয়াশিংটন, (সংবাদ সংস্থা): মহামারী করোনা ভাইরাস বিশ্বের উন্নয়নের ধারাকে দুই দশকের বেশি পেছনে ঠেলে দিয়েছে। এক গবেষণা প্রতিবেদনে এমনটাই দাবি করেছে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, করোনার প্রভাবে লক্ষ লক্ষ মানুষ ব্যাপক বৈষম্য, ব্যাধি এবং দারিদ্রের মুখোমুখি হয়েছেন। এমনকী, এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে রাষ্ট্রপুঞ্জের টেকসই উন্নয়ন কর্মসূচীতেও।

প্রতিবেদনে গেটস ফাউন্ডেশন দাবি করেছে, মহামারীর কারণে বিশ্বজুড়ে চরম দারিদ্রতা বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ৭ শতাংশ। সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে প্রতি সপ্তাহ আগের চেয়ে প্রায় ১০ লক্ষের বেশি মানুষ চরম দারিদ্র্যের শিকার হয়েছেন। এর ফলে এখন প্রায় ৪ কোটি মানুষ চরম দারিদ্র্যের মধ্যে পড়েছে। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জের একাধিক সংস্থাগুলি স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বিভিন্ন দেশে যে ভ্যাকসিন কর্মসূচি পরিচালনা করে থাকে নিয়মিত, ১৯৯০ সালের পর এবার তা সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমে এসেছে। ফলে, দারিদ্রতার পাশাপাশি জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থাও হুমকির মুখে পড়েছে।

আরও পড়ুন:ফের ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল নেপাল, রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ৫.৪

এপ্রসঙ্গে গেটস ফাউন্ডেশনের কার্যনির্বাহী পরিচালক মার্ক সুজম্যান বলেছেন, আমরা টানা ২০ বছর ধরে চরম দারিদ্র্যের হারে অবনতির আরেকটি বিপর্যয় দেখছি।

তবে, পরিস্থিতি সামলাতে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) পূর্বাভাস তুলে ধরেছে গেটস ফাউন্ডেশন। প্রতিবেদনে ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, মহামারী করোনা ভাইরাসের সামলে ওঠার জন্য এবং বিশ্ব অর্থনীতি বাঁচাতে বিশ্বেজুড়ে ১৮ ট্রিলিয়ন (লক্ষ কোটি) ডলারের উদ্দীপনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু এটি যথেষ্ট নয়। এরপরেও বিশ্ব অর্থনীতি আগামী বছরের শেষ নাগাদ ১২ ট্রিলিয়ন ডলার হারাবে, যা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধির বৃহত্তম ক্ষতি।

Related Articles

Back to top button
Close