fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় পাঞ্জাব থেকে সিআইডির হাতে গ্রেফতার আরও ২ শার্প শ্যুটার 

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা হত্যা কান্ডে সিআইডির জালে ধরা পড়ল আরো ২ শার্প শ্যুটার । তাদের নাম জানা গেছে সুজিত রাই এবং রৌশন যাদব । এই দুই কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে সিআইডির বিশেষ তদন্তকারী দল পাঞ্জাব থেকে গ্রেপ্তার করেছে বলে জানা গেছে । ধৃতদের ২ জনেরই বয়স ২৫ এর মধ্যে বলে সিআইডি সূত্রের খবর ।  শুক্রবার দুপুরে এই ২ কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে পাঞ্জাব থেকে গ্রেফতার করে নিয়ে এসে ব্যারাকপুর মহকুমা আদালতে পেশ করে সিআইডি ।
তবে ধৃতদের এদিন বিচারকের সামনে নিয়ে যাওয়া হয় তাদের টি আই প্যারেডের অনুমতি চেয়ে । ব্যারাকপুর মহকুমা আদালত সিআইডিকে নির্দেশ দিয়েছে শনিবার রৌশন ও সুজিতের টি আই প্যারেড করাতে হবে । এরপর সিআইডি প্রয়োজন মনে করলে তাদের নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জেরা করবে ।
জানা গেছে, এখনো পর্যন্ত মণীশ শুক্লা হত্যা কান্ডের ঘটনায় সিআইডির হাতে এখনো পর্যন্ত ৩ জন শ্যুটার গ্রেপ্তার হয়েছে । তবে সিআইডির তদন্তে প্রথম থেকেই অনাস্থা প্রকাশ করেছে বিজেপি নেতৃত্ব । ব্যারাকপুরের বিজেপি নেতা তথা আইনজীবী রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য্য বলেন, “সিআইডি সঠিক ভাবে তদন্ত করছে না । ৩ জন শ্যুটার গ্রেফতার হলেও এফআইআর যে সব শীর্ষ স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে হয়েছে, তারা বহাল তবিয়তে বাইরে ঘুরে বেড়াচ্ছে, পুজো উদ্বোধন করে বেড়াচ্ছে । এরা ধরা না পড়লে এই মামলার নিষ্পত্তি হওয়া মুশকিল । পুলিশ সূত্রে খবর, মণীশ শুক্লা হত্যা কান্ডের ঘটনায় টিটাগড় ও ব্যারাকপুর পৌরসভার ২ প্রশাসকের নাম অভিযুক্তদের তালিকায় রয়েছে । একদিন এই ২ তৃণমূল নেতাকে সিআইডির পক্ষ থেকে ডেকে সংক্ষিপ্ত জিজ্ঞাসা বাদ করে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
বিজেপির অভিযোগ, মানুষ হত্যায় মূল ষড়যন্ত্রকারী এই ২ তৃণমূল নেতা । যদিও এই দুই পৌর প্রশাসক আগেই জানিয়ে দিয়েছেন, বিজেপি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করে তাদের নাম অভিযোগের তালিকায় দিয়ে দিয়েছে । সিআইডি সূত্র অনুসারে জানা গেছে, তদন্ত সঠিক পথেই এগোচ্ছে । দোষীদের কাউকে ছাড়া হবে না । এখনো পর্যন্ত সিআইডি এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৩ জন কুখ্যাত শ্যুটার ছাড়াও গ্রেপ্তার করেছে টিটাগড় অঞ্চলের ব্যবসায়ী খুররম খানকে । ব্যারাকপুর মহকুমা আদালতে সিআইডি একটি নাইন এমএম বন্দুক পেশ করেছে ।
জানা গেছে, মণীশ খুনের ঘটনায় মোট ৬জন শ্যুটার ভাড়া করা হয়েছিল । তাদের মধ্যে ৩ জন ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার হয়েছে বলে সিআইডি সূত্রের খবর । বাকিরাও দ্রুত গ্রেপ্তার হবে বলে সিআইডি সূত্র জানিয়েছে । বর্তমানে ধৃত সুজিত রাই ও রৌশনকে টি আই প্যারেডের পর গ্রেপ্তার করে জেরা করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে । বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লকে চলতি মাসের ৪ তারিখে গুলিতে ঝাঁঝরা করে খুন করে দুষ্কৃতীরা । সেই ঘটনায় তদন্তে নেমে সিআইডি তদন্তকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে ।

Related Articles

Back to top button
Close