ক্রিকেটখেলাহেডলাইন

আইসিসি-র আচরণ বিধি ভঙ্গে দোষী সাব্যস্ত ভারত-বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব ১৯ দলের ৫ ক্রিকেটার

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালের পর অপ্রীতিকর ঘটনায় আইসিসি-র রোষে পাঁচ ক্রিকেটার। এদের মধ্যে দুজন হলেন ভারতের ক্রিকেটার অপর তিনজন চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের। ভারতের আকাশ ও বিষ্ণোইয়ের সঙ্গে আইসিসি-র আচরণ বিধি ভঙ্গে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার মহম্মদ তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন ও রাকিবুল হাসান। আইসিসি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, পাঁচ ক্রিকেটার প্লেয়ার ও সাপোর্ট স্টাফদের জন্য আইসিসি আচরণবিধির লেভেল ৩ ভঙ্গ করেছেন। তাঁদের আচরণবিধির ২.২১ ধারা ভঙ্গের জন্য দায়ী করা হয়েছে। বিষ্ণোইকে ২.৫ ধারা ভঙ্গের জন্যও দায়ী করা হয়েছে।

রবিবার অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচের শুরু থেকেই উত্তেজনার পারদ ছিল তুঙ্গে। বাংলাদেশের প্লেয়াররা ছিলেন আগ্রাসী মেজাজে। পেসার শরিফুল ইসলাম প্রায় প্রতি বলের শেষেই ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের স্লেজিং করেন। বাংলাদেশ যখন জয়ের দিকে এগোচ্ছিল, তখনও শরিফুলের আগ্রাসী মেজাজ ধরা পড়েছে ক্যামেরায়।

ম্যাচ শেষ হওয়ার পর বাংলাদেশের প্লেয়াররা মাঠে ছুটে আসেন এবং তাঁদের শরীরী ভাষায় তখনও আক্রমণাত্মক মনোভাব স্পষ্টভাবে ধরা পড়েছে। এরফলে মাঠে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়। যার জেরে আইসিসি ভারতের দুই খেলোয়াড় আকাশ ও বিষ্ণোইয়ের সঙ্গে বাংলাদেশি ক্রিকেটার মহম্মদ তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন ও রাকিবুল হাসানকে আচরণ বিধি ভঙ্গে দোষী সাব্যস্ত করে। এদের বিরুদ্ধে সমস্ত অভিযোগগুলি দায়ের করেছিলেন দুই আম্পায়ার স্যাম নোগাজস্কি, অ্যাদ্রিয়েন হোল্ডস্টোক, তৃতীয় আম্পায়র রবীন্দ্র উইমালাসিরি এবং চতুর্থ আম্পায়ায় প্যাট্রিক বঙ্গনি জেলে।

Related Articles

Back to top button
Close