fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ছাত্র-যুব ফ্রন্ট, ‘আত্মনির্ভর’ নাকি দল ত্যাগের ইঙ্গিত? পোস্টার বিতর্কে উদয়ন

 যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্য জুড়ে যখন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু হয়েছে ঠিক তখন তৃণমূল কংগ্রেসের নাম বাদ দিয়ে শুধু উদয়ন গুহের অনুপ্রেরণায় ছাত্র যুব কনভেনশনের ডাক দেওয়া হয়েছে দিনহাটায়।

নিজস্ব সংবাদদাতা দিনহাটা: রাজ্য জুড়ে যখন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু হয়েছে ঠিক তখন তৃণমূল কংগ্রেসের নাম বাদ দিয়ে শুধু উদয়ন গুহের অনুপ্রেরণায় ছাত্র যুব কনভেনশনের ডাক দেওয়া হয়েছে দিনহাটায়। বিধায়ক উদয়ন গুহের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত প্রাক্তন কাউন্সিলার জয়দীপ ঘোষ নিজের ফেসবুক ওয়ালে ওই ছাত্রযুব কনভেশনের পোষ্টার পোস্ট করে কনভেনশনের ডাক দিয়েছেন।

আর ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরে রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। রবিবার বিকাল তিনটায় দিনহাটা শহরের মহারাজা নৃপেন্দ্র নারায়ন সদনে তৃণমূলের নাম উল্লেখ না করে এই ছাত্র যুব কনভেনশন কে ঘিরে রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক আলোড়ন ছড়িয়ে পড়েছে। আর ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরে নানা প্রশ্ন উঠেছে। দিনহাটা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র অলোক নিতাই দাসের খুনের ঘটনায় বহিস্কৃত প্রাক্তন কাউন্সিলর বিধায়ক উদয়ন গুহের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত জয়দীপ ঘোষ নিজের ফেসবুক ওয়ালে ওই ছাত্রযুব কনভেশনের পোষ্টার পোস্ট করেন। তিনি সেখানে উল্লেখ করেন “যারা মাননীয় শ্রী উদয়ন গুহ মহাশয়কে ভালোবাসো, যারা উদয়ন গুহের হাত শক্ত করে ধরতে চাও, যারা দিনহাটায় উদয়ন গুহের ছত্রছায়ায় থাকতে চাও, তারা ১২ তারিখ (রবিবার) বিকেল তিনটের মধ্যে মহারাজা নৃপেন্দ্র নারায়ণ স্মৃতি সদনে এসে সেটা প্রমান করো।” প্রাক্তন কাউন্সিলর তার ফেসবুক ওয়ালে একথা উল্লেখ করার পরেই উদয়ন গুহের অনুপ্রেরণায় ছাত্র-যুব কনভেনশনের ওই পোষ্টার দেন । উল্লেখ্য গত পাঁচ জুলাই দিনহাটায় তৃণমূলের এক কর্মী সভায় দলে তার বিরোধী গোষ্ঠীর উদ্দেশ্যে বলেন তিনি আর ভোটে দাঁড়াবেন না। প্রার্থী খুঁজুক বিরোধী গোষ্ঠী। পাশাপাশি তিনি বলেন আগামী নির্বাচনে তৃণমূল যদি ক্ষমতায় না আসে তাহলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন রাজ্যপালের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিতে যাবেন সেই পদত্যাগপত্র জমা দিয়ে ফেরার আগেই আমাদের কর্মীদের ছাল চামড়া থাকবে না। রাজ্য তৃণমূল জয়ী না হলে যারা চাকরি ও ঘর দেওয়ার নামে কোটি কোটি টাকা তুলেছেন, তাঁদের পিঠের চামরা তুলে নেবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। এরইমধ্যে দলের বহিস্কৃত প্রাক্তন জয়দীপ ঘোষ তৃণমূলের নাম উল্লেখ না করে উদয়ন গুহর অনুপ্রেরণার কথা উল্লেখ করে ছাত্র যুব কনভেনশনের ডাক দেওয়ায় এনিয়ে দিনহাটায় দলের অন্দরে চাপানউতোর শুরু হয়েছে।

উদয়ন গুহ অনুপ্রেরণায় ছাত্র যুব কনভেনশন সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনই পোস্টার প্রসঙ্গে তৃণমূলের কোচবিহার জেলা কার্যকারী সভাপতি পার্থ প্রতিম রায় বলেন, ওই পোস্টার সম্পর্কে দলের কোন সম্পর্ক এবং সম্মতি নেই। এছাড়া সেখানে দলের কোন বিধায়ক যাবে কিনা তা তাদের সন্দেহ রয়েছে। এসব পোস্টার কে আমরা গুরুত্ব দিতে চাইছি না।
তৃণমূলের অনেকেই উদ্বেগ প্রকাশ করে বলছেন, সামনে বিধানসভা নির্বাচন। দলনেত্রীর নির্দেশে একের পর এক কর্মসূচী শুরু হয়েছে। সেখানে দলীয় ব্যানার ছাড়া এমন করে ছাত্রযুব কনভেশন ডাক দেওয়ার কি অর্থ তা নিয়ে অনেকেই সন্দিহান । কেউ কেউ আগ বাড়িয়ে বলছেন, এবার কি তাহলে তৃণমূল ছাড়ার জন্য ছাত্র যুব কনভেনশন ডেকে নিজের সাংগঠনিক শক্তি যাচাই করে দেখতে চাইছেন?
বিধায়ক উদয়ন গুহ বলেন, “কেউ ছাত্র যুব কনভেনশন ডাকতেই পারে। দলের বাইরেও অনেক ছাত্র যুব রয়েছে। তাঁদের কে একসাথে করতে এমন কনভেনশন হতেই পারে।” তবে ওই কনভেনশন রবিবার হওয়ার কথা থাকলেও কয়েক দিন পিছিয়ে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। তবে তিনি এখনও ডাক পান নি। ডাক পেলে যাবেন কিনা, সেটা তখন ভেবে দেখবেন ।

বিষয়টি নিয়ে তৃণমূলের প্রাক্তন কাউন্সিলর বহিস্কৃত জয়দীপ ঘোষকে অবশ্য বলেন দিনহাটায় উদয়ন গুহ বিকল্প কোনো নেতা নেই। তাই অনেকেই চান উদয়ন গুহ হাতকে শক্তিশালী করার জন্য। ছাত্র যুব সংগঠনের বাইরে ও যারা রয়েছেন তাদেরকে একত্রিত করতেই এই কনভেনশনের ডাক দেওয়া হয়েছে। তবে রবিবারের ওই কনভেনশনে অনেকেই থাকতে না পারার জন্য পরবর্তী দিন খুব শীঘ্রই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সকলকে জানিয়ে দেওয়া হবে

Related Articles

Back to top button
Close