fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সুন্দরবনে চাপে পড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের টাকা ফেরত দিল ব্লক সভাপতি

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: আমফানের ক্ষতিগ্রস্তদের টাকা তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছিল সভাপতি ও কর্মদক্ষের বিরুদ্ধে। অবশেষে চাপে পড়ে সেই টাকা ফেরত ব্লক সভাপতি ও কর্মদক্ষ। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার সুন্দরবনের হিঙ্গলগঞ্জে। স্থানীয় গ্রামবাসী সাবিরা বিবি ও মোশারফ গাজী বলেন, হিঙ্গলগঞ্জ তৃণমূলের ব্লক সভাপতি শহীদুল্লা, কর্মদক্ষ স্বরূপ প্রামানি, মেম্বার সহ ৫ জন নিজের নাম পদ ব্যবহার করে কুড়ি হাজার টাকা করে তুলে নিয়েছেন। সেই টাকা তাদের অ্যাকাউন্টে জমা পরেছে। তাদের দাবি, প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত যারা তারা এই অর্থ পাচ্ছে না, তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে এমনটাই স্বজনপোষণের অভিযোগ তুলেছে স্থানীয় বাসিন্দারা।

তাদের অভিযোগ, যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তারা না পেয়ে দোতল, একতলা বাড়ির বেশ কিছু মানুষকে দলের পক্ষ থেকে টাকা পাইয়ে দেওয়া হচ্ছে। এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে হিঙ্গলগঞ্জ ব্লক সভাপতি ও কর্মদক্ষ শহিদুল্লাহ গাজী সহ দলের  পাঁচজন। তারা বলেন, আমাদের তৃণমূল দলের একটা অংশ চক্রান্ত করে , আমাদের নাম ঢুকিয়ে দিয়েছে। আমরা পরে গিয়ে দেখি ব্যাংকে টাকা ঢুকে গেছে। আমফানের ক্ষতিগ্রস্তদের টাকা জমার সঙ্গে সঙ্গে আমরা এই টাকা ফেরত দিয়েছি ।ইতিমধ্যে ব্লক সভাপতি কর্মদক্ষ মেম্বার সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে হিঙ্গলগঞ্জ এর বিডিও সৌম্য ঘোষ জেলা ও রাজ্য নেতৃত্বের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

শহীদুল্লাহ বাবু বলেন, তৃণমূল দলের একটা অংশ আমাদের বিরুদ্ধে চক্রান্তে নেমেছেন। পাশাপাশি কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা করছেন। আমরা এটা জানার পরে আমাদের ব্যাংকের যে টাকা ঢুকে ছিল সেই টাকা আবার আমরা ফেরত দিয়ে দিয়েছি। উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের শিক্ষা পরিবহন ও তথ্য-সংস্কৃতি দপ্তরের কর্মদক্ষ ফিরোজ কামাল গাজী বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যে প্রশাসনকে কড়া ব্যবস্থার নির্দেশ দিয়েছেন। যারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত হবে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করা হবে। এবং এই অভিযোগ সঠিক কিনা সেটাও বিচার করে দেখা হবে। তৃণমূলের প্রভাবশালীরা নেতারা এই ঘটনায় জড়িত থাকায় সুন্দরবনের মানুষের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close