fbpx
দেশহেডলাইন

ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তায় আজ উত্তরপ্রদেশের চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ, নজরে উন্নাও ও লখিমপুর কেন্দ্র

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্কঃ কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে শুরু হল উত্তরপ্রদেশের চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ। ভাগ্য নির্ধারণ হবে ৬২৪ জন প্রার্থীর। লখনউ এবং কংগ্রেসের ঘাঁটি-সহ ন’টি জেলার ৫৯ টি আসনে আজ লড়াই। লখিমপুর খেরি, পিলভিট, লখনউ, রায়বরেলি, বান্দা, ফতেহপুর, উন্নাও এবং হরদোই জেলায় ভোট হবে। বান্দা এবং পিলভিট ছাড়া পুরোটাই আওয়াধ অঞ্চলের মধ্যে পড়ে। এবারের ভোটে গুরুত্বপূর্ণ দিক এই ভোটে প্রার্থী হয়েছেন উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে নির্যাতিতার মা। আজ ভাগ্য পরীক্ষা লখিমপুরের। এই ভোটের হাত ধরে বিজেপি কি আবার লখিমপুরের হৃত গৌরব ফিরে পেতে পারবে সেটাই এখন দেখার। উত্তেজনা প্রবণ এলাকা হওয়ার কারণে লখিমপুর খেরিতে বহুস্তরীয় নিরাপত্তা বলয়ের মধ্য দিয়ে চলছে ভোট গ্রহণ। এই ভোট এবারে বড় চ্যালেঞ্জ অজয় মিশ্র টেনির কাছে।

এদিকে লখনউতে সকাল সকাল ভোট দিলেন মায়াবতী। মিউনিসপাল নার্সারি স্কুল ভোট দিলেন বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী। লখনউয়ের কেন্দ্রে ভোট দেন বিএসপি নেতা সতীশ চন্দ্র মিশ্র। তিনি বলেন, “বিএসপি একতরফা ভোট পাচ্ছে। এই দফা শেষ হওয়ার পরই নিশ্চিত হয়ে যাবে যে বিএসপিই ক্ষমতায় আসে।”

যোগী রাজ্য এই চতুর্থ দফার ভোট গ্রহণ খুব গুরুত্বপূর্ণ। উন্নাও ও খেরির দিকে সকলে নজর রয়েছে। চতুর্থ দফায় হেভিওয়েট প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন আইনমন্ত্রী ব্রিজেশ পাঠক, তিনি লখনউ ক্যান্টনমেন্ট থেকে দাঁড়িয়েছেন। এছাড়াও মন্ত্রী আশুতোষ টন্ডন (লখনউ ইস্ট), ইডি-র প্রাক্তন জয়েন্ট ডিরেক্টর রাজেশ্বর সিং(সরোজিনী নগর)-ও রয়েছেন, উল্টো দিকে সপা সরকারের প্রাক্তন মন্ত্রী অভিষেক মিশ্রও প্রার্থী হয়েছেন।

২০১৭ সালে ৫৯ আসনের মধ্যে ৫১টিতেই জয়ী হয়েছিল বিজেপি, ৪টি আসন গিয়েছিল সপা-র ঝুলিতে, ২টি করে আসন পেয়েছিল কংগ্রেস ও বিএসপি। ১টিতে জয়ী হয়েছিল আপনা দল।

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close