fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

প্রেমিকার সঙ্গেই বিয়ে, বউভাতের সকালে মর্মান্তিক মৃত্যু তৃণমূল কাউন্সিলরের ছেলের

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: প্রেমিকার সঙ্গে যথেষ্ট ধুমধাম করেই বুধবার বিয়ে হয়েছিল তৃণমূল কাউন্সিলর নিশীথ চক্রবর্তীর ছেলে নীলাদ্রি চক্রবর্তীর। প্রচুর সংখ্যক নিমন্ত্রিত থাকায় শনিবার এবং রবিবার দু’দফায় বৌভাত অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল। বাড়ির কাছে বড় মাঠে বাধা হয়েছিল প্যান্ডেল। কিন্তু শনিবার সকালে আচমকাই মৃত্যু হল ওই যুবকের। স্বাভাবিকভাবেই শোকের ছায়া নেমে এসেছে যুবকের এবং তার সদ্য বিবাহিতা স্ত্রীর পরিবারে।

জানা গিয়েছে, শনিবার ভোরে হঠাৎ শরীর খারাপ করে ২৫ বছর বয়সী নীলাদ্রি চক্রবর্তীর। এদিন সকাল বেলা তার বাবা ঘর খুলে দেখেন, গোটা ঘর ধোঁয়ায় ভরে গিয়েছে। তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় পিয়ারলেস হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন নীলাদ্রিকে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাঘাযতীন এলাকার ৯৯ নম্বর ব্লক তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি তৃণমূল কাউন্সিলর নিশীথ চক্রবর্তীর ছেলে নীলাদ্রি প্রেম করেই বিয়ে করছিলেন। সব ঠিকঠাকভাবে চলছিল। বন্ধুদের সঙ্গে মিলে রীতিমতো হল্লা করে বিয়ে করেন নীলাদ্রি। কাউন্সিলরের ছেলের বিয়েতে নিমন্ত্রিত অতিথির সংখ্যা ছিল অনেক। তাই দু’‌দিন ধরে বউভাতের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু আনন্দ অনুষ্ঠান এর আগেই সমস্ত কিছু শেষ হয়ে যায়।

তবে শনিবার সন্ধ্যাতেই নীলাদ্রির ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেয়েছে নেতাজি নগর থানার পুলিশ। জানা গিয়েছে, ওই যুবক মদ্যপায়ী ছিল এবং ধূমপান করত। তার গ্যাস্ট্রিক আলসার এবং লিভারের সমস্যা ছিল। প্রচুর পরিমাণে কার্বন মনো অক্সাইড শরীরে যাওয়ার ফলে তার মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ জানতে পেরেছে, বৌভাতের আগের দিন রাতে ওই ঘরে সে বন্ধুদের সাথে মদ এবং ধূমপানের সাথে সেলিব্রেট করছিল। বন্ধুরা রাতের দিকে বেরিয়ে গেলে সে দরজা বন্ধ করে হাতে সিগারেট নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। তার হাতে জ্বলন্ত সিগারেট থেকে বালিশে আগুন লেগে প্রচুর ধোঁয়া সৃষ্টি হয়।

কিন্তু প্রচুর নেশা করে থাকার কারণে সে উঠতে পারে নি। ফলে বিছানায় শুয়েই সে চরম অসুস্থ হয়ে পড়ে। সকালে তার বাবা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত ঘোষণা করা হয়।

Related Articles

Back to top button
Close